ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে গ্রেগ চ্যাপেলের কোচিং জমানা অন্যতম বিতর্কিত অধ্যায়। অনেকের মতে কলঙ্কিতও। দলের মধ্যে বিভেদ তৈরি করা, দলীয় রাজনীতির কারণে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দল থেকে বাদ পড়া, রাহুল দ্রাবিড়ের অধিনায়কত্বে দলে কোচের প্রভাব বেশি থাকা। দলে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিনটি আলাদা কোচের বিতর্কিত ভাবনা, ইডেনে দর্শকদের 'মিডল ফিঙ্গার' দেখানে থেকে শুরু করে আরও কত কী। যে কটি বছর গ্রেগ চ্যাপেল ভারতীয় দলের কোচ ছিলেন বিতর্ক তার নিত্যদিনের সঙ্গী ছিল। তাকে কোচের পদ থেকে সরানোর জন্য তোলপার হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট। রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ পর্যন্ত দেখায় সাধারণ জনতা। গ্রেগ চ্য়াপেলের কোচিং নিয়ে যখনই সুযোগ পয়েছেন তার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন একাধিক ভারতীয় তারকা। তাদের মধ্য়ে অন্যতম হরভজন সিং। এবার আরও একবার গুরু গ্রেগের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে ভাজ্জি জানালেন,একটা দলকে ভেঙে ফেলতে গ্রেগ চ্যাপেলের জুড়ি মেলা ভার।

আরও পড়ুনঃনেতা হিসেবে কিছুই জিততে পারেননি কোহলি,এবার গম্ভীরের তোপে ভারত অধিনায়ক

ভারতীয় দলের প্রাক্তন ওপেনার আকাশ চোপড়ার সঙ্গে আলাপচারিতায় যোগ দিয়েছিলেন হরভজন সিং। সেখানে ভারতের তারকা অফ স্পিনার বলেছেন,'গ্রেগ চ্যাপেল কোচ হয়ে এসে পুরো দলটাকে ধ্বংস করে দিয়েছিলেন। অনেক কিছু ঘটেছিল সেই সময়। কোচ হিসেবে ওঁর কী মোটিভ ছিল তা উনিই জানেন। তবে একটা জমাট দলকে কী ভাবে নষ্ট করতে হয়, তা ওঁর থেকে ভাল কেউই জানে না। যা চাইতেন উনি তাই করতেন। আর উনি যা চাইতেন মিডিয়া সেটাই লিখত। ওঁর কথামতো চলত লোকে।' এছাড়া দলের মধ্যে বিভাজন নীতি শুরু করেছিলেন গ্রেগ চ্যাপেল। তার জন্য সৌরভকে অধিনায়কত্ব হারাতে হয়েছিল ও দল থেকে বাদ পড়তে হয়েছিল বলেও দাবি করেছেন ভাজ্জি। একইসহ্গে ২০০৭ বিশ্বকাপে ভারতের জঘন্য পারফরমেন্স নিয়ে হরভজন বলেছেন,'২০০৭ সালে হওয়া ৫০ ওভারের বিশ্বকাপই আমার কেরিয়ারের সবচেয়ে খারাপ সময়। আমরা একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছিলাম। মনে হচ্ছিল যে, দেশের প্রতিনিধিত্ব করার পক্ষে এটা মোটেই ঠিক সময় নয়। কারণ, ভারতীয় ক্রিকেটের মাথায় ভুলভাল লোক বসেছিল। কে এই গ্রেগ চ্যাপেল? উনি ঠিক কী করতে চেয়েছিলেন? গ্রেগ চ্যাপেল আসলে ডিভাইড অ্যান্ড রুল নীতি নিয়ে চলেছিলেন। উনি এমন কাজই করতেন।'এছাড়াও হরভজন যোগ করেছেন,' ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে আমাদের দল রীতিমতো শক্তিশালী ছিল। কিন্তু আমরা নিজেদের মেলে ধরতে পারিনি। কারণ, মানসিক ভাবে কেউই সেরা জায়গায় ছিলাম না। কেউই কাউকে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। দল অসুখী হলে তার প্রতিফলন তো পড়বেই পারফরম্যান্সে। আমরা শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের কাছে হেরে গিয়েছিলাম। অথচ, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ মোটেই বড় দল ছিল না।'

আরও পড়ুনঃসৌরভের বায়োপিকে অভিনয় করার স্বপ্ন ছিল সুশান্ত সিং রাজপুতের

আরও পড়ুনঃসুশান্তের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ মহেন্দ্র সিং ধোনি

গ্রেগ চ্যাপেলের বিরুদ্ধে হরভজনের ক্ষোভ উগড়ে দেওয়া নতুন কোনও ঘটনা নয়। ভারতীয় ক্রিকেটে সেই সম খারাপ অবস্থার জন্য সবসময় হরভজন গ্রেগ চ্যাপেলকে দায়ী করেছেন। আর তা সত্যিও। তা নাহলে গ্রেগ চ্যাপেল ছাড়ার পরই ভারতীয় কোচদের নিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতত না ভারত। সম্প্রতি ধোনিকে ফিনিশার বানানোর ক্রেডিও নিজেকেই দিয়েছিলেন গ্রেগ চ্যাপেল। তখনও চ্যাপেলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন যুবরাজ, হরভজন সিংরা।