করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। যদিও পঞ্চম দফার লকডাউন আগের থেকে অনেক বেশি শিথিল করা হয়েছে। কিন্তু গোটা লকডাউন পর্বে সকল ক্রিকেটারদের জীবন সম্পর্কে তথ্য পাওয়া গেলেও প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির জীবন সম্পর্কে খুব একটা তথ্যা আমরা পায়নি। যেটুকু পেয়েছে তার স্ত্রী সাক্ষীর সৌজন্যে। তাও কোনও একটা মুহূর্তের ছবি বা ভিডিও। কিন্তু এত বড় লকডাউনের এতগুলি দিন কীভাবে কাটল মাহির তা জানতে কিন্তু উৎসুখ আট থেকে আশি। অন্যান্য ক্রিকেটার যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক বেশি সক্রিয়, ধোনি কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া থেকে একেবারেই বিরত রাখেন নিজেকে। ২০১৯-এর বিশ্বকাপ  সেমি ফাইনালের পর থেকে সত্যি সত্যি নিভৃতবাসে গিয়েছেন ধোনি। কিন্তু এবার ধোনির লকডাউন লাইফের তথ্য ফাঁস করলেন তার স্ত্রী সাক্ষী। চেন্নাই সুপার কিংসের ইস্টাগ্রামে লাইভ চ্যাটে যোগ দিয়েছিলেন সাক্ষী। সেখানেই লকডাউনে ধোনির জীবনের একাধিক তথ্য তুলে ধরেন মাহি অনুরাগীদের জন্য।

আরও পড়ুনঃশুরু হচ্ছে লা লিগা,তার আগে জেনে নিন লিগের ইতিহাসে সেরা ১০ লেজেন্ড কারা

লকডাউনের ধোনির জীবন সম্পর্কে লাইভ চ্যাটে আলোচনা উঠলে সাক্ষী জানান,'দিনের অনেকটা সময় বাইক নিয়েই কাটান ধোনি। মাহির ন’টা বাইক আছে। ও এখন বসে বসে বাইকগুলো খুলছে, নতুন পার্টস কিনছে আর বাইকগুলোকে আবার জোড়া লাগাচ্ছে। এই করতে গিয়ে পরের দিন দেখা যাচ্ছে, একটা কিছু বাইকে লাগাতে ভুলে গিয়েছে। যার ফলে আবার বাইকটা পুরো খুলতে হচ্ছে! তার পরে ফের জোড়া লাগাচ্ছে।' এছাড়াও ভিডিও গেমস খুব পছন্দ ধোনির। তাই ভিডিও গেমসেও ডুবে থাকেন তিনি। সাক্ষী জানান,'ভিডিয়ো গেমস মাহিকে চাপমুক্ত থাকতে সাহায্য করে। ওর মস্তিষ্ক সব সময় কাজ করে চলেছে। কখনও বিশ্রাম নেয় না। এখন ক্রিকেট নেই। তাই যখন ভিডিয়ো গেমস খেলছে, তখন মাথাটা অন্য একটা দিকে খাটাচ্ছে। যেটা একটা দিকে ভাল। আর এখন পাবজি তো আমাদের বিছানাও দখল করে নিয়েছে। ইদানীং তো ঘুমের মধ্যেও পাবজি নিয়ে কথা বলে চলেছে মাহি।'এছাড়া আমি ও মেয়েক সময় দেওয়া, পোষ্যর সঙ্গে খেলা সবকিছুই করেন ধোনি।

আরও পড়ুনঃ'কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে,মেসেজ সরিয়ে নিয়েছি',ধোনির অবসর প্রসঙ্গে বললেন সাক্ষী

আরও পড়ুনঃধোনির এমন স্টাইল ছিল না পসন্দ, প্রত্যাখানের কথাও ভেবেছিলেন সাক্ষী

লকডাউন পুরোপুরি উঠে গেলে কী করবেন ধোনি ও সাক্ষী লাইভ চ্যাটে তারও আভাস দিয়েছেন মিসেস দোনি। বলেছেন,'যদি ক্রিকেট হয়, তা হলে ক্রিকেটই প্রাধান্য পাবে। তবে মাহি আর আমার পরিকল্পনা আছে পাহাড়ের দিকে যাওয়ার। আমরা উত্তরাখণ্ডের দিকে যেতে পারি। ছোট, ছোট গ্রামগুলোয় থাকলাম। গাড়ি নিয়ে সড়কপথে যাব, কোনও বিমানে নয়।' ফলে লকডাউনের পর ক্রিকেট ফিরলে যে ক্রিকেটই যে ধোনির প্রধান পছন্দ তা পরিষ্কার করেছেন সাক্ষী। একান্ত যদি ক্রিকেটে ফেরা সম্ভব না হয় তাহলে স্বপরিবারে ফ্যামিলি ট্যুরে যাবেন এমএসডি।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

#WhistlePodu @ruphas

A post shared by Chennai Super Kings (@chennaiipl) on May 31, 2020 at 4:38am PDT