২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষবার দেখা গিয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। তারপর থেকে কার্যত নিভৃতবাসেই রয়েছেন এমএসডি। চলতি বছরের আইপিএলে ফেরার কথা থাকলেও, করোনা ভাইরাসের দাপটে তাও সম্ভব হয়নি। তারপর থেকেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে ধোনির কেরিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে। ধোনির অবসর নিয়ে জল্পনা শুরু হয় দিকে দিকে। কিন্তু নিজের অবসর প্রসঙ্গে এখনও কোনও মন্তব্যই করেননি মাহি। এরমধ্যে গত বুধ ট্যুইটারে ট্রেন্ড করতে শুরু করে  #DhoniRetires। যা নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া। ধোনি মুখ না খুললেও চুপ থাকেননি সাক্ষী।  রীতিমতো ক্ষুদ্ধ হয়ে  ট্যুইটে সাক্ষী     লেখেন,"এটা শুধুমাত্র একটা ভুয়ো খবর। আমি বুঝতে পারছি মানুষ লকডাউনে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে গিয়েছে। #ধোনিরিটায়ার্স গেট অ্যা লাইফ।" যদিও পরে তিনি এই টুইটটি ডিলিট করে দেন। সাক্ষীর মন্তব্যের পর #DhoniRetires বদলে হয়ে যায় #DhoniNeverRetires। ফ্যানরা ধোনির সমর্থনেই এগিয়ে আসেন।

আরও পড়ুনঃশুরু হচ্ছে লা লিগা,তার আগে জেনে নিন লিগের ইতিহাসে সেরা ১০ লেজেন্ড কারা

আরও পড়ুনঃবিরাটকে সোজা মাঠের বাইরে পাঠালেন হার্দিক,বিয়ের আগেই মা হতে চলেছেন নাতাশা

এরইমধ্যে চেন্নাই সুপার কিংসের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে প্রথমবার লাইভ চ্যাটে আসেন সাক্ষী। সাংবাদিক রূপহা রামানির সঙ্গে লাইভ চ্যাটে আড্ডা দেওয়ার সময় ফের ওঠে ধোনির অবসর ও ট্যুইট প্রসঙ্গ। সাক্ষী বলেন, এই হ্যাশট্যাগ সম্পর্কে তিনি তাঁর এক বন্ধুর থেকে জানতে পারেন। এবং তিনি সিদ্ধান্ত নেন এই জল্পনা থামানোর। তিনি বলেন,"আমার এক বন্ধু আমাকে মেসেজ করে জানতে চায় কী চলছে? এই #DhoniRetires দুপুর থেকে ট্রেন্ডিং হয়ে রয়েছে। আমি ভাবলাম এটা কী, তার পর আমি জানি না, আমার মধ্যে কিছু হল এবং আমি ট্যইট করেল ফেলি, যদিও আমি ডিলিট করে দিয়েছি, কিন্তু কাজটা করে ফেলেছিলাম এবং সেটি ছড়িয়ে পড়েছিল। তবে যেটা করতে চেয়েছিলাম সেই কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে।" এছাড়াও ধোনি প্রসঙ্গে সাক্ষী বলেন,  "তিনি খুব কম প্রোফাইল রাখেন এবং এখন লকডাউন চলাকালীন, তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি রয়েছে, সুতরাং আমি জানি না যে, এগুলি কোথা থেকে এসেছে। মাহি এবং আমি, কোনও সংবাদ বা সোশ্যাল মিডিয়াকে অনুসরণ করি না"। চলতি বছরে এখনও আইপিএল না হওয়ায় আইপিএলকে খুব মিস করছেন বলেও  রূপহা রামানিকে জানিয়েছেন সাক্ষী।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

#WhistlePodu @ruphas

A post shared by Chennai Super Kings (@chennaiipl) on May 31, 2020 at 4:38am PDT

আরও পড়ুনঃব্রাজিলে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ৫ লক্ষ, অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ফুটবল লিগ চালু করতে মরিয়া বোলসোনারো