২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারতীয় দলের টি২০ বিশ্বজয় তাঁর ভাবনা চিন্তাকে অনেকটাই বদলে দিয়েছিল। ধোনি, গম্ভীর, যুবরাজদের দাপট দেখে ক্রিকেটের প্রতি আকৃষ্ট হয়েছ পরেছিলেন তিনি। তারপর থেকেই স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলা। স্বপ্ন ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে প্রতিপক্ষের বোলারদের শাসন করার। তিনি শুভমান গিল। ভারতীয় টেস্ট দলের নতুন সদস্য। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ হোক, ভারতীয় এ দলের হয়ে মাঠে নেমে ব্যাটি হোক, রনজি ট্রফিতে পাঞ্জাবের প্রতিনিধিত্ব করা হোক বা আইপিএলে কলকাতা নাইটা রাইডার্সের হয়ে জার্সিতে ইডিনে চমক দেখানো। সবেতেই শুভমান নিজের ছাপ রেখেছেন। তাই এবার তাঁর জন্য খুলে গেল জাতীয় দলের দরজাটাও।  এর আগে বিরাটের দলের হয়ে  নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি২০ ম্যাচ খেলেছেন। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেট একটা অন্য মাত্র এনে দেয় যে কোনও ক্রিকেটারের জীবনে। তাই টেস্ট দলে নির্বাচিত হয়ে টুইট করে নিজের আনন্দ প্রকাশ করেন তরুণ এই ক্রিকেটার। 

অনান্য ক্রিকেটারের মত তিনিও সচিনের ভক্ত। ছোট বেলায় দেখা মাস্টার ব্লাস্টারের স্ট্রেট ড্রাইভ এখনও তাঁর মনে পরে। অনেকেই শুভমানের কভার ড্রাইভের সঙ্গে মিল খুঁজে পান বিরাটের। টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়কের ব্যাটিংয়েও মুগ্ধ শুভমান। ১৭ বছর বয়েসে পাঞ্জাব দলে গিল যখন সুযোগ পান তখন সেই দলে ছিলেন যুবরাজ হরভজনরা। যুবি পাজি’র লড়াই শুভমানকেও অনুপ্রাণিত করে। তিনি ক্রিকেট ভক্ত। বর্তমান ও প্রাক্তন একাধিক ভারতীয় ক্রিকেটারকে দেখে অনেক কিছুই শিখেছেন, এখনও শিখছেন। রোল মডেল আছে। কিন্তু তা বলে কোনও আদর্শকেই অনুকরণ করতে চান না শুভমান। বলছেন, ‘আমি আমার রোল মডেলদের দায়বদ্ধতা দেখে শেখার চেষ্টা করি। কিন্তু নকল করার চেষ্টা করি না।’ নিজের উঠে আসা নিয়ে আরও একজনের কাছে কৃতজ্ঞ পাঞ্জাবের তরুণ ব্যাটম্যান। তিনি, রাহুল দ্রাবিড়। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ থেকে রাহুল দ্রাবিড়কে পাশে পেয়েছেন শুভমান। দ্য ওয়ালের একাধিক টিপস তাঁকে খেলা অনেকটাই বদলে দিয়েছে। বলছেন শুভমান গিল। 

ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার আগে থেকেই ভারতীয় ক্রিকেটে একটা পরিচিত নাম হয়ে উঠেছেন শুভমান গিল। এক কম বয়েসে পাওয়া খ্যাতি তাঁর ফোকাসে থাবা বসাতে পারেনি। কারণ শুভমানের বাবা কড়া নজর রাখেন ছেলেও ওপর। ক্রিকেট বাদে শুধু ফুটবল পছন্দ শুভমানের। ব্রাজিল ফুটবলের তারকাকে এতটাই পছন্দ করেন যে, নেইমার যে দলের হয়ে খেলেন সেই দলেই সমর্থক হয়ে যান শুভমান। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে মিডিল অর্ডারে খেললেও রনজি ট্রফি বা ভারতীয় এ দলের হয়ে ওপেন করেন শুভমান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিনি দলে আছেন। কিন্ত কোন পজিশনে ব্যাটিং করবেন? ক্রিকেট মহল মনে করছে শুভমানকে ওপেনার হিসেবেই দলে রেখেছেন নির্বাচকরা।