মারণ ভাইরাস করোনার জেরে স্তব্ধ গোটা বিশ্ব। স্তব্ধ খেলার মাঠও। কোভিড ১৯-এর জেরে বিশ্ব জুড়ে বন্ধ সমস্ত ধরনের স্পোর্টিং ইভেন্ট। এবার বিশ্বজুড়ে করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ক্রীড়া প্রেমীদের জন্য কিছুটা আশার বাণী নিয়ে এল বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি। পরিস্থিতি যদি ঠিকঠাক থাকে তাহলে নির্দিষ্ট সময়েই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ করতে বদ্ধপরিকর আইসিসি। সোমবার এই কথা জানানো হয়েছে আইসিসি-র তরফে।

আরও পড়ুনঃঘরবন্দি অবস্থায় বাড়ির উঠোনে বোনের সঙ্গে টেনিস খেললেন রাফায়েল নাদাল, ভাইরাল ভিডিও

একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তারা জানান, গোটা বিশ্ব করোনায় বিধ্বস্ত। আসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২০-র লোকাল অর্গানাইজিং কমিটি গোটা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে। এবং লাগাতার নজর রাখবে। পুরুষদের এই টুর্নামেন্ট ১৮ অক্টোবর শুরু হওয়ার কথা। চলবে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত। অস্ট্রেলিয়ার সাতটি ভেন্যুতে হবে খেলা। নির্ধারিত দিনেই টুর্নামেন্ট শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বহু আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে ক্রিকেট খেলীয় দেশগুলি। ভারতও নানা সিরিজে দলে বদল এনে ঝালিয়ে নিচ্ছে ক্রিকেটারদের। কে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেবেন, কে বাদ পড়বেন, এমন আলোচনা দীর্ঘদিন ধরে চলছে। সবচেয়ে বড় প্রশ্ন মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে। তিনি অস্ট্রেলিয়ায় ভারতীয় জার্সি গায়ে চাপাবেন কি না, জানতে আগ্রহী ক্রিকেটপ্রেমীরা। 

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় ১ কোটি টাকার বেশি অনুদান দিল ইন্ডিয়ান অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন

আরও পড়ুনঃ১০ হাজার কিলো চাল ও ৭০০ কেজি আলো গরীবদের মধ্যে বিতরণ করলেন পাঠান ব্রাদার্স

তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে অথবা আরও অবনতি ঘটলে চলতি বছর বিশ্বকাপ বাতিলের সম্ভাবনাও থেকে যাচ্ছে। কারণ বর্তমানে করোনা আতঙ্কের জেরে প্রায় পৃথিবী জুড়েই চলছে লকডাউন। পরিস্থিতির উন্নতি না হলে সেই লকডাউন কত দিন চলবে তা কেউ জানে না। করোনার জেরে অস্ট্রেলিয়ায় বন্ধ রয়েছে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল। অবস্থার উন্নতি না হলে বিমান চলাচলও স্বাভাবিক হওয়া সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে ২০২২-এ হতে পারে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বাতিল হতে পারে ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরও। তবে বর্তমানে এইসব কিছু নিয়ে ভাবতে নারাজ আইসিসি। তারা পজেটিভ দিক ধরেই এগোচ্ছে। তাই করোনা আতঙ্কের মধ্যেও আইসিসির বিজ্ঞপ্তি মুখে হাসি ফুটিয়েছে ক্রিকেটপ্রেমীদের।