বিশ্বকাপ না জিততে পারলেও বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অভিযানটা একেবারে চ্যাম্পিনের মতোই করল বিরাট বাহিনী। চলতি সপ্তাহের শুরুতেই অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টে ওয়েস্টইন্ডিজকে ৩১৮ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। আর তার ফলেই এই মুহূর্তে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের একেবারে শীর্ষ স্থানে রয়েছে কোহলির দলই।

ভারতের সম্না পয়েন্ট হলেও একটি করে ম্যাচ হারায় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট তালিকার দুই ও তিন নম্বর স্থানে রয়েছে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা। এই দুই দেশের মধ্য়ে সিরিজে গলে প্রথম টেস্টে ৬ উইকেটে জয় পেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। পরের টেস্টেই কলম্বোতে শ্রীলঙ্কাকে ৬৫ রানে হারিয়ে সিরিজ ড্র করে কিউইরা।

আরও পড়ুন - ভয়ঙ্কর বুমরা, দুরন্ত রাহানে, ভারতের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ ওয়েস্ট ইন্ডিজের

আরও প়ড়ুন - কলকাতায় পৌঁছেই বেফাঁস কিরমানি, পন্থের বদলে ঋদ্ধিকেই বাছলেন তিনি

আরো পড়ুন - ফের ছুটির আমেজে বিরাট, রাহুল, ম্যাচ জিতে মাঝ সমুদ্রে ছুটি কাটাচ্ছেন তাঁরা

আরও পড়ুন - অধিনায়ক হিসাবে সাফল্যের শীর্ষে বিরাট, ছুঁয়ে ফেললেন ধোনির রেকর্ড

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নিয়ম অনুযায়ী দুই টেস্টের সিরিজে একটি ম্য়াচ জিতলেই ৬০ পয়েন্ট পাওয়া যায়। যেইরকম, ভারত, শ্রীলঙ্কা ও নিউফজিল্যান্ড পেয়েছে। কিন্তু সিরিজ অ্য়াসেজের মতো পাঁচ টেস্টের হলে সেই ক্ষেত্রে জিতে ম্য়াচ প্রতি মিলবে ২৪ পয়েন্ট আর ড্র করলে ৮। চলতি অ্যাসেজ সিরিজে এখনও পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড দুই দলই একটি করে ম্য়াচে জয় পেয়েছে, এবং একটি ম্য়াচ ড্র করেছে। তাই আপাতত দুই দলের পয়েন্টই ৩২।

দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান এখনও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অভিযান শুরু করেনি।

৩০ অগাস্ট থেকেই ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে ভারতের দ্বিতীয় তথা সিরিজের শেষ টেস্ট শুরু হচ্ছে। ভারত এই ম্যাচেও জিতলে আপাতত বাকি দলগুলির ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে। ড্র করলেও বাকিদের থেকে এগিয়ে থাকবে। কিন্তু হেরে গেলে, কোহলিদের শীর্ষে থাকা না থাকাটা নির্ভর করবে অ্যাসেজ সিরিজের বাকি দুই ম্যাচের ফলের উপরে।