বৃহস্পতিবার থেকে ইন্দোরে শুরু হল ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট সিরিজ। প্রথম টেস্টের প্রথম সেশন থেকেই চালকের আসনে বিরাট কোহলির দল। ইন্দোরের উইকেট পেসারদের মুখে হাসি ফোটাবে, এম ইঙ্গিত ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে যখন পিচ রিপোর্ট সামনে এল তখন সেটাই দেখা গেল, ২২ গজে ঘাসের প্রলেপ। উইকেট দেখে তিন পেসার ও দুই স্পিনার নিয়ে মাঠে নামল ভারতীয় দল। টস করতে এসে যদিও হারের মুখ দেখত হল বিরাটকে। কিন্তু ভারত অধিনায়কের কাজটা সহজ করে দিলেন বাংলাদেশের তরুণ অধিনায়ক মমিনুল। ঘাসে ঢাকা উইকেটে টস জিতেও ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। বাংলাদেশ অধিনায়কের সিদ্ধান্তে বিরাটের মুখে হাসি। কারণ তিনি যে প্রথমে বোলিং করতেই চেয়েছিলেন। 

 

 

আরও পড়ুন - ফুটবল বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে আফগানদের বিরুদ্ধে জয় চাইছে ভারত

ঘাসে ঢআকা উইকেটে বিরাটের পরিকল্পনা ছিল পরিস্কার। ইশান্ত, উমেশ, সামির আগুনে বোলিং দিয়ে বাংলাদেশকে ব্যাকফুটে ঠেলে দেওয়া। ভারতীয় পেসাররা কোহলির সেই পরিকল্পনা মাঠে নেমে সঠিক ভাবেই মেলে ধরলেন। ইশান্ত-উমেশের হাতে নতুন বল তুলে দিয়েছিলেন বিরাট। স্কোর বোর্ডে ১২ রান তুলেই পরপর দুই উইকেট হারাল বাংলাদেশ। ফিরে গেলেন দুই ওপেনার। ইমরুলকে ফেরালেন উমেশ। ইশান্তের শিকার শাদমান ইসলাম। 

 

 

আরও পড়ুন - অসম্ভব-কে সম্ভব করার ডাক সত্যরূপের, চাকরি ছেড়ে নয়া পথে বাঙালির ছেলে

প্রথম সেশনের ২৬ ওভারের মধ্যে ভারতীয় পেস বোলাররাই করলেন ২২ ওভার। বাংলাদেশের তৃতীয় উইকেট তুলে নিলেন সামি। তিনি ফেরালেন মহম্মদ মিঠুনকে। লাঞ্চব্রেকে যাওয়ার আগে স্কোর বোর্ডে মাত্র ৬৩ রান তুলতে পেরেছে বাংলাদেশ। ভারতীয় পেসারদের আগুনে বোলিংয়ের সামনে একেবেরেই স্বাচ্ছন্দ বোধ করছেন না বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। সেই সুযোগে প্রথম থেকেই টাইগারদের ব্যাটফুটে ঠেলে ম্যাচে চালকের আসনে কোহলির দল। 

আরও পড়ুন - গোলাপি বলের টেস্টে 'বিরাট' পছন্দের উইকেট গড়ছে ইডেন গার্ডেন্স