এবছরের অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হওয়ার কথা ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কিন্তু দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। যার ফলে গ্রিন সিগনাল পেয়ে যায় আইপিএল ২০২০। জোরকদমে চলছিল আইপিএলের প্রস্তুতি। তারমধ্যেই জল্পনা চলছিল যে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কোন দেশে হবে। শুক্রবার আইসিসির বৈঠকের পর বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার তরফে থেকে জানিয়ে দেওয়া হল পরের বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্ব কাপের আসর বসছে ভারতের মাটিতেই। 

আরও পড়ুনঃমাঠ লক্ষ্য করে ছুটে এল ঝাঁকে ঝাঁকে গুলি, ফের পাকিস্তানে ক্রিকেটের উপর জঙ্গি হামলা

বিশ্বকাপের ভবিষ্যৎ নির্ধারনে শুক্রবার টেনি কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে বসেছিল আইসিসি। বৈঠকে ঠিক হয় যে বাতিল হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে ২০২২ সালে। যার আয়োজন করেব অস্ট্রেলিয়া। আর পূর্ব নির্ধারিত সূচি মেনেই ২০২১-এর টি২০ বিশ্বকাপ হবে ভারতের মাটিতে। দুটি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে অক্টোবর-নভেম্বর মাসে। ২০২১-এ ভারতে হতে চলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৪ নভেম্বর ও ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হতে চলা টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৩ নভেম্বর। 

 

 

আরও পড়ুূনঃঅবশেষে স্বস্তি ভক্তদের মনে, সাহিল-শুভ আসতে পারে এটিকে-মোহনবাগানে

আরও পড়ুনঃএবার দুবাইতে শুধুই ধোনির হেলিকপ্টার শট, যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত এমএসডি

একইসঙ্গে এদিন ফের স্থির করা হয় যে ২০২৩ সালের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে ভারতের মাটিতে। ফলে একবছরের ব্যবধানে ভারতের মাটিতে আয়োজিত হতে চলেছে দুটি বিশ্বকাপ। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও চেয়েছিল ২০২১ ও ২০২৩-এর বিশ্বকাপ করতে। তাতে ব্যবসায়ীক দিক থেকে সাফল্য আসার সম্ভাবনা অনেক বেশি। বিসসিআইয়ের ইচ্ছে পূরণ হওয়ায় খুশি কর্তারা। করোনা মহামারীর কারণে যে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে বোর্ড, দুটি বিশ্বকাপ থেকে সেই ক্ষতি অনেকটা পূরণ হওয়ার বিষয়ে আশাবাদী বিসিসিআই কর্তারা।