শেষ বার নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। পৃথ্বী শাহের দল ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে আট উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপ হাতে তুলে নিয়েছিল। গোটা টুর্নামেন্টে একটাও ম্যাচ হারেনি ভারত। এবার টিম ইন্ডিয়ার সামনে খেতাব ধরে রাখার লড়াই। রবিবার ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের অফিসে এদিকে যেমন চলছিল ৮৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা তখন অন্যদিকে চলছিল অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে দল নির্বাচন পর্ব। বিশেষ আমন্ত্রণে বৈঠকে ছিলেন গতবারের চ্যাম্পিয়ন দলের কোচ রাহুল দ্রাবিড়। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে জুনিয়রদের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা ও বর্তমানে এনসিএ প্রধান হিসেবে কাজ করা রাহুল নিজের অভি়জ্ঞতা শেয়ার করেন নির্বাচকদের। ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটি শুরু হবে বিশ্বকাপ। 

 

 

আরও পড়ুন - রবিবার দলকে করলেন চ্যাম্পিয়ন, সোমবার বিয়ের পিঁড়িতে ভারতীয় ক্রিকেটার

১৫ সদস্যের দলে তেমন চমক নেই। এবারের দলকে নেতৃত্ব দেবেন প্রিয়ম গর্গ। উত্তর প্রদেশের এই ক্রিকেটার ইতিমধ্যেই প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে পা রেখেছেন। ২০১৮-১৯ মরসুমের রনজি ট্রফিতে ৮১৪ রান করেছেন তিনি। একই সঙ্গে দলে আছেন মুম্বই দলের ক্রিকেটার যশস্বী জয়সোয়াল। বিজয় হাজারে ট্রফিতে সারা ফেলেছেন তিনি। সব থেকে কম বয়েসে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েছেন এই ক্রিকেটার। দেশের সেরা তরুণ প্রতিভা তুলে ধরা হয়েছে এই দলে। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ইতিহাস সব থেকে সফল দল ভারত। মহম্মদ কাইফ, বিরাট কোহলি, উনমুক্ত চন্দ ও পৃথ্বী শাহের দল দশকে বিশ্বসেরা করেছে। এবার দায়িত্বটা প্রিয়মদের হাতে। 

আরও পড়ুন - অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টানা ১৪ টেস্টে হার, লজ্জার রেকর্ড গড়ে হোয়াইটওয়াশ পাকিস্তান

এদিকে ভারতীয় বোর্ড দেশের অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে দল ঘোষণা করা পাশাপাশি এক তরুণ ক্রিকেটারকে নির্বাসিত করেছে। দিল্লির অনুর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটার প্রিন্স যাদবকে বয়েস ভাড়ানোর অপরাধে দুবছরের জন্য নির্বাসনে পাঠিয়েছে বিসিসিআই। বোর্ডের পক্ষ জানানো হয়েছে, প্রিন্সের যে বার্থ সার্টিফিকেট বোর্ডের কাছে জমা হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে তারা জন্ম ২০০১ সালে। কিন্তু প্রিন্সের স্কুলে গিয়ে পরীক্ষা করতেই জানা যায় ২০১২ সালে সে ক্লাস টেনের পরীক্ষায় পাস করেছে। তদন্তের পর জানা যায় প্রিন্সের জন্ম ১৯৯৬ সালে। দুবছরের নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে আসার পর আর কোনও বয়েস ভিত্তিক টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবে না প্রিন্স। খেলতে হবে সিনিয়র পর্যায়ে। নিজেদের সিদ্ধান্তে এমনটাই জানিয়েছে বোর্ড।  

আরও পড়ুন - মুস্তাক আলি ট্রফিতেও ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব, এজিএম শেষে সৌরভের কথায় চাঞ্চল্য