শুক্রবারই কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে শুরু হয়েছে ভারত ও বাংলাদেশের প্রথম দিন রাতের টেস্ট। প্রথম দিনই কলকাতা সহ গোটা দেশের ক্রিকেট প্রেমিকা বুঝিয়ে দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটের এই নতুন পথচলা নিয়ে কতটা উন্মাদনা তৈরি হয়েছে তাদের মধ্যে। ক্রিকেটাররাও বেশ উপভোগ করছেন এই পিঙ্ক বল টেস্ট। এর মাঝেই ভারতীয় টেস্ট দল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল দুই ক্রিকেটারকে। উইকেটকিপার ঋষভ পন্থ ও ব্যাটসম্যান শুভমান গিলকে টেস্ট দল থেকে ছেড়ে দিল বিসিসিআই। বোর্ড জানিয়েছে এই দুই ক্রিকেটারকে বলা হয়েছে  রাজ্য দলের হয়ে সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০ ট্রফি খেলতে। ঋষভ ও শুভমানের বদলে ভারতীয় টেস্ট দলে যোগ দিলেন অন্ধ্র প্রদেশের উইকেটকিপার কেএস ভারত। 

আরও পড়ুন - সচিন থেকে গৌতম গম্ভীর, গোলাপি ইডেনে নস্টালজিক প্রাক্তনরা

পিঙ্ক বল টেস্টের প্রথম দিনই একটা ছবি কার্যত পরিস্কার হয়ে গেছে। বাংলাদেশে ইডেনেও হারের মুখ দেখতে চলেছে। আর এই ম্যাচটাও তিন তিনেকের বেশি এগোবে না। তাই এই দুই তরুণ ক্রিকেটারকে রিজার্ভ বেঞ্চে বসিয়া রাখার বদলে নিজেদের রাজ্য দলের হয়ে টি-২০ ট্রফি খেলতে পাঠিয়ে দেওয়া হল। পন্থের দিল্লি ও শুভমানের পাঞ্জাব দুই দলই মুস্তাক আলি ট্রফির সুপার লিগ পর্যায়ের যোগ্যতা অর্জন করেছে। তাই মুস্তাক আলিতে পাওয়া যাবে পন্থ ও শুভমানকে। অন্ধ্রপ্রদেশ সুপার লিগ পর্যায়ে উঠেত পারেনি। তাই কেএস ভারতকে ভারতীয় দলে কভার হিসেবে ডেকে পাঠান হল। 

আরও পড়ুন - সৌরভ ভারতীয় ক্রিকেটের সেরা পাওনা, ইডেনে এশিয়ানেট নিউজ বাংলার মুখোমুখি ফারুক ইঞ্জিনিয়ার

তবে বোর্ডের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে একটা মহলে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। কারণ ম্যাচর প্রথম দিনই বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটের চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছেন। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমবার কনকাশন নিয়ম লাগু করে দুই ক্রিকেটার বদল করেছে বাংলাদেশ। ভারতীয় দলেও যদি এমন কোনও প্রয়োজন হয় তখন কি হবে? ভারতীয় দল যদিও সেসব নিয়ে ভাবছে না। কারণ প্রয়োজনে ব্যবহার করার মত ক্রিকেটার আছে দলে। যেহেতু পন্থ ঋদ্ধির বিকল্প কিপার হিসেবে দলে ছিলেন তাই আরও একজন কিপার কে দলের সঙ্গে রাখা হয়েছে। 

আরও পড়ুন - শহর সেজেছে গোলাপি আলোয়, পরিকল্পনায় সফল ‘মহারাজ’ তৃপ্ত