ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন সবে এক বছর হল। সময় কাটাচ্ছেন পরিবারের সঙ্গে। খব একটা বিতর্কে জড়ান তাও নন। জাতপাত নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের উদাহরণ নেই তার বিরুদ্ধে। বন্যা হোক বা করোনা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সব সময়। কিন্তু এবার সামান্য পোষাকের জন্য তাকে তুলনা করা হল  জঙ্গী সংগঠনের নেতা হাফিজ সৈঈদের সঙ্গে। কথা হচ্ছে ইরফান পাঠানের। সম্প্রতি পাঠান ড্রেস ও মাথায় ফেজ টুপি পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দেন ইরফান পাঠান। আর তাতেই তাকে হতে হল ট্রোলড। শুধু ট্রোলড নয়, কার্যত অপমানিত হতে হল প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটারকে। একটি ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানকে পরবর্তী হাফিজ সঈদ বলা হল।

আরও পড়ুনঃবিরাট কোহলির থেকে বাবর আজমকেই এগিয়ে রাখলেন ইনজামাম উল হক

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই ওই পোস্ট ভাইরাল হতে শুরু করে। বিষয়টি পাঠানের নজরে আসার পরই প্রচন্ড রেগে যান তিনি।  জঙ্গি সংগঠনের নেতা হাফিজ সৈয়দের সঙ্গে তুলনা কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি পাঠান। তিনি পাল্টা লেখেন, 'কিছু মানুষের মানসিকতা আসলে এতটাই খারাপ। দিন দিন আমরা যে কোথায় চলেছি! লজ্জা। হতাশা।' পোস্ট বিশাল পরিমানে ভাইরাল হওয়ায় কিছুটা হতাশও হয়ে পড়েন প্রাক্তন ক্রিকেটার। যদিও পড়ে জানা যায় যে অ্যাকাউন্ট থেকে এমন ঘটনা ঘটনো হয়েছে সেটি একটি ফেক অ্য়াকাউন্ট।

 

 

আরও পড়ুনঃনেটে ফিরেই বল হাতে আগুন ঝড়ালেন মহম্মদ সামি,দেখুন ভিডিও

আরও পড়ুনঃফুটবল বিশ্বে ভূমিকম্প, বার্সোলোনা ছাড়ছেন কী লিওনেল মেসি

ঘটনার প্রতিবাদ করেন বলিউড অভিনেত্রী রিচা চড্ডা। প্রতিবাদ করার পাশাপাশি ইরফানের উদ্দেশ্যে রিচা চড্ডা লেখেন,'এটা ফেক অ্যাকাউন্ট। আসল মানুষের নয়।' পাঠানও পাল্টা যুক্তি দিয়ে লেখেন,'কিন্তু কেউ না কেউ তো নিশ্চই ওই অ্যাকাউন্ট ম্যানেজ করছে।' কিছু ইউজার সোশ্যাল মিডিয়ায় থাকেন শুধুমাএ সেলিব্রিটিদের ট্রোল করার জন্যই। তাদের মধ্যে ফেক ইউজারও রয়েছেন। এইসকল ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেছেন ইরফান পাঠানের অনুগামীরা।