ছোট্ট রানআপ। তাতেই দৌড়ে এসে বল করছেন ১৪০ থেকে ১৪৫ কিললোমিটার বেগে। সঙ্গে ইন সুইং, আউট সুইং ও একের পর এক ইয়র্কার। আর তাতে নাস্তানাবুদ হচ্ছে বিশ্বের তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যান। এটাই বিশেষত্ব ভারতীয় তথা বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সফল বোলার জশপ্রীত বুমরার। প্রথমে আইপিএল ও  তারপর ২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের সময় তার বোলিং অ্যাকশন দেখে অবাক হয়েছিলেন অনেকেই। কারণ ক্রিকেটীয় ব্যাকারণের বাইরে এমন বোলিং অ্যাকশন খুব একটা দেখা যায় না। এই অদ্ভুত বোলিং অ্যাকশন নিয়ে কত দিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবেন বুমরা, প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেক বিশেষজ্ঞই। কিন্তু চার বছরে বুমরা হয়ে উঠেছে ভারতীয় পেস অ্যাটাকের সেরা অস্ত্র। টেস্ট, ওয়ান ডে, টি২০ ক্রিকেটের সব ফরম্যাটেই নিজেক প্রমাণ করেছেন বুমরা। আইসিসি ব়্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষেও উঠেছেন। কিন্তু তার এই অদ্ভুত বোলিং অ্যাকশনের কারণ কি? তা জানার কৌতুহল ছিল ক্রিকেট বিশ্বের। কিংবদন্তী ইয়ান বিশপ ও শন পোলকের সঙ্গে আলোচনায় সেই রহস্যই ফাঁস করলেন ভারতীয় স্পিড স্টার।

আরও পড়ুনঃঝগড়া থেকে প্রেম, দাম্পত্য জীবনের নানা গোপন তথ্য ক্যুইজ শো-তে জানালেন বিরুষ্কা

ইয়ান বিশপ এর আগেও বুমরার বোলিং অ্যাকশন দেখে অবাক হয়েছিলেন। তাই স্বভাবতই বুমরার মুখোমুখি হওয়ায় তাকে বোলিং অ্যাকশন নিয়ে জিজ্ঞেস করতে ভোলেননি। আলাপচারিতায় বুমরা জানান,'শৈশবের সীমাবদ্ধ পরিবেশে ক্রিকেট খেলার ফলেই তিনি আত্মস্থ করে ফেলেছেন এই ব্যতিক্রমী দক্ষতা। কারণ ছোটবেলায় বাড়ির উঠোনে খেলতাম। কিন্তু সেখানে দৌড়ানোর জায়গা ছিল কম। আমি এখন যতটা দৌড়াই এরচেয়ে বেশি জায়গা ছিল না। উপায় না দেখেই তাই অতটুকু দৌড়াতাম। আর তা বছরের পর বছর ধরে করার ফলে ছোট রানআপে জোরে বল করাটা আমার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে।'একইসঙ্গে বুমরা জানিয়েছেন,'শবে অন্য সবার মতো ছকে বাধা কোচিং করার সুযোগ হয়নি তার। সবটাই টিভিতে খেলা দেখে নিজে নিজেই শিখেছি। আমি সেভাবে প্রথাগত কোচিং পাইনি বা কোনও ট্রেনিং ক্যাম্প করেনি। আজ পর্যন্ত যাই শিখেছি, সবই নিজে নিজে, ভিডিও বা টিভিতে খেলা দেখে।’ কিন্তু এই ধরনের বোলিং অ্যাকশনে চোটের আশঙ্কা অনেক বেশি থাকে। সেই বিষয়েও জানতে চান ইয়ান বিশপ, শোন পোলক। জবাবে বুমরা বলেন,'অ্যাকশন শোধরানোর প্রস্তাব পেলেও নিজের সহজাত ভঙ্গিই ধরে এগোতে চাই আমি। অ্যাকশন বা রানআপ কোন কিছুই বদলানোর দরকার নেই। অনেকে অনেক কিছু বলেন। কারও কথা না শুনে নিজের শক্তির উপর আস্থা রেখেছি। আর ছোট রানআপে গতি থাকলে রান আপ বাড়াতে যাব কেন।'

আরও পড়ুনঃআইসিসির চেয়ারম্যান নির্বাচনের পদ্ধতি নিয়ে বিবাদ বিসিসিআই ও পিসিবির

আরও পড়ুনঃমাঠেই রেফারিকে লাথি-ঘুষি রাশিয়ার প্রাক্তন অধিনায়কের, গুরুতর আহত রেফারি, দেখুন ভাইরাল ভিডিও

নিজের ক্রিকেটের আরও উন্নতি করতে চান বলেও জানিয়ছেন বুমরা। তার জন্য তিনি কোনও নির্দিষ্ট ক্রিকেটার বা বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নেননা। সকলের সঙ্গেই বোলিং নিয়ে কথা বলেন বলেও জানিয়েছে জশপ্রীত বুমরা। আর আইপিএল থেকে তার আবির্ভাব তাই আইপিএল থেকে তিনি অনেক কিছু শিখতে পেরেছেন বলেও মত বুমরার। সামনেই ফের আইপিএল। খুব শীঘ্রই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের সঙ্গে পারি দেবেন মরু দেশে। দীর্ঘ লকডাউনের পর ক্রিকেটে ফিরতে পেরে খুশি ইন্ডিয়ান পেস ব্যাটারি। আইপিএল ভাল করা ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে আরও একবার সাফল্য এনে দেওয়াই লক্ষ্য জশপ্রীত বুমরার। আর সবটাই নিজের শক্তি ও বিশ্বাসের উপর ভর করেই করতে চান বুম বুম বুমরা।