ফুটবল মাঠে মেজাজ হারানোর ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও একাধিকবার ফুটবল বিশ্বের বিভিন্ন প্রন্তে ফুটবল মাঠে বিবাদ, ঝামেলা বা মারপিঠে জড়িয়েছেন ফুটবলাররা। রেফারির সঙ্গে প্লেয়ারদের বিবাদের বিষয় নতুন নয়। কিন্তু সিদ্ধান্ত পছন্দ না হওয়ায় রেফারিকে ঘুষি-লাথি, বেদম প্রহারের খবর সচরাচর ঘটনা। রাশিয়ার অ্যামেচার লিগ মস্কো সেলিব্রিটি কাপ টুর্নামেন্টে ঘটল এমনই ঘটনা। আর এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন রাশিয়ার জাতীয় দলের প্রাক্তনঅধিনায়ক  এবং জেনিথ সেন্ট পিটার্সবার্গের আইকনিক ফুটবলার রোমান শিরোকোভ। 

আরও পড়ুনঃআইসিসির চেয়ারম্যান নির্বাচনের পদ্ধতি নিয়ে বিবাদ বিসিসিআই ও পিসিবির

মস্কো সেলিব্রিটি কাপ টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালের খেলা চলাকালীন বিপক্ষ বক্সে রোমান শিরোকোভকে ফাইল করেন বিপক্ষ দলের ফুটবলার। তারপরই রেফারির কাছে পেনাল্টির দাবি জানাতে থাকেন শিরোকোভ। কিন্তু তার দাবিতে খুব একটা কর্ণপাত করেননি ম্যাচের রেফারি নিকিতা দানচেঙ্কো। তারপরই রেফারির সঙ্গে ক্রমাগত বিবাদ করতে থাকেন শিরোকোভ। বাধ্য হয়ে তাকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। এরপরই মেজাজ হারিয়ে রেফারিকে বেদম প্রহার করেন শিরোকোভ। মুখে ঘুষি মেরে রেফারি নিকিতা দানচেঙ্কো মাটিতে ফেলে দেন। তারপরই মাটিতে ফেলে লাথি মারেন শিরোকোভ। পরে অন্যান্য় ফুটবলার এসে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনে। ঘটনার পর ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়।

আরও পড়ুনঃক্যান্সারকে জয় করে মাঠে ফিরেছিলেন তিনি, এবার সঞ্জয় দত্তের পাশে দাঁড়ালেন যুবরাজ

আরও পড়ুনঃজেনে নিন ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা কয়েকটি উদ্ভাবনী শট সম্পর্কে

বেদম প্রহারের চোটে মাঠেই যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন রেফারি। পরে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে তার চিকিৎসা করানো হয়। পরে ঘটনার ভয়াবহতা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে রেফারি দানচেঙ্কো জানিয়েছেন, তাঁকে সাড়ে ১২ ঘন্টা হাসপাতালে কাটাতে হয়েছে। প্রচুর পরীক্ষার পাশাপাশি শরীরে সেলাই পড়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। টুর্নামেন্টটি রাশিয়ান ফুটবল ইউনিয়ন কিংবা মস্কো ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে কোনওরকম সম্পর্কিত না হওয়ায় শিরোকোভ বড়সড় শাস্তি থেকে রেহাই পেতে পারেন। কিন্তু পরবর্তীতে তাঁর বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল প্রোসিকিউশনের সম্ভাবনা প্রবল। যদিও ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন রাশিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক। কিন্তু ঘটনার ভিডিও দেখে জাতীয় দলের জার্সি ৫৭টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ও দেশকে অধিনায়কত্ব করা ফুটবলারের সমালোচনায় সরব হয়েছে গোটা ফুটবল বিশ্ব।