দেশ জুড়ে করোনা আতঙ্ক। বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। দেশের ক্রীড়া ক্ষেত্রেও ব্যাপক প্রভাব পড়েছে কোভিড ১৯ ভাইরাসের। যার জেরে অনিশ্চিত আইপিএল ২০২০-এর ভবিষ্যৎ। এই পরিস্থিতিতে দেশের ছেলেদের ধাঁচে মহিলাদের আইপিএল শুরুর দাবি জানালেন ভারতীয় মহিলেদের একদিনের দলের অধিনায়ক মিথালী রাজ। দাবি দীর্ঘদিনেরই ছিল, এবার সেই দাবিকে আরও জোরদার করলেন মহিলা একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের অধিকারী।

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসের কারণে এবার এশিয়া কাপের ভবিষ্যৎও অনিশ্চিত

আগামী বছর থেকেই আইপিএল শুরুর দাবি জানিয়েছেন মিথালী রাজ। প্রয়োজনে আগামী বছরের আইপিএল বহরে ছোট হোক, কিন্তু সময় নষ্ট করা উচিত নয় বলেও জানিয়েছেন মিথালী। এতদিন মেয়েদের ঘরোয়া ক্রিকেটে পরিকাঠামো এবং স্পনসরের অভাবে তা এখনও হয়ে ওঠেনি।  এ বছর টি-২০ বিশ্বকাপের আগেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল আইপিএলের ধাঁচে অন্তত চারটি দল নিয়ে মেয়েদের আলাদা টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হবে। কিন্তু করোনার জেরে আইপিএলের ভবিষ্যতই অনিশ্চিত। এর মধ্যে আলাদা করে মেয়েদের টুর্নামেন্ট যে হবে না তা বলে দেওয়াই যায়।

আরও পড়ুনঃপাকিস্তানে করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এলেন শাহিদ আফ্রিদি, ট্যুইটে প্রশংসা হরভজনের

আরও পড়ুনঃদেশের করোনা মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা দান পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের

মহিলাদের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হার মেনেছে ভারতের মহিলারা। এর পরেই দেশের প্রাক্তন ক্রিকেটাররা মহিলাদের আইপিএল করার জন্য সুর চড়িয়েছেন। মহিলাদের আইপিএল পুরোদস্তুর শুরু না হলেও বোর্ড প্রদর্শনী আইপিএল শুরু করেছে। পুরোদমে মহিলাদের আইপিএল হতে বেশ কয়েক বছর লাগবে বলে জানিয়েছে বোর্ড। মিতালী বলছেন,“আমার ব্যক্তিগত মতামত আগামী বছরই আইপিএলের মতো মেয়েদের টুর্নামেন্ট হওয়া উচিত। প্রয়োজন পড়লে এটা ছোট করে হতে পারে। দরকার হলে নিয়মাবলীতেও কিছু বদল হতে পারে। যেমন ধরুন, আইপিএলে ৪ জন বিদেশি খেলেন। মেয়েদের টুর্নামেন্টে সেই সংখ্যাটা ৫ বা ৬ হতে পারে। কোনও কিছুর জন্যই চিরদিন অপেক্ষা করা যায় না। কোনও না কোনও সময় শুরু করতেই হয়। তারপর নাহয় বছর বছর আস্তে আস্তে পরিস্থিতি বদলালে ৬ জন বিদেশির জায়গায় ৪ জন করে দেওয়া যাবে।” এছাড়াও মিথালী বলেছেন,  সম্প্রতি মহিলা ক্রিকেটে ভারত অনেকটা উন্নতি করলেও অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের মতো দলগুলির থেকে বেশ পিছিয়ে। আইপিএলের ধাঁচের টুর্নামেন্ট ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটে আমুল বদল আনতে পারে। মিথালী এই দাবিক সমর্থন জানিয়েছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির ও ভাল ভবিষ্যতের স্বার্থেই মিথালী রাজের এই দাবি বলে মত ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের।