সম্প্রতি এক ইউটিউব শো-তে যোগ দিয়ে একের পর এক বোমা ফাটিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। কেকেআর অধিনায়ক থাকাকালীন শাহরুখ খান দল চালানোর ক্ষেত্রে পূর্ণ স্বাধানীতা দেননি, ওই সাক্ষাৎকারে বলোছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। একইসঙ্গে ওই সাক্ষাৎকারে আলোচনা হয়, ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব হারানো ও দল থেকে বাদ পড়ার প্রসঙ্গে। আমাদের সকলেরই জানা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দল থেকে বাদ পড়ার প্রধান কারণ ছিলেন তৎকালীন ভারতীয় কোচ গ্রেগ চ্যাপেল। কিন্তু ইউটিউব শো-তে আরও বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।  তাঁর স্পষ্ট মত, তাঁর সঙ্গে এমন অন্যায় আচরণে বিসিসিআইয়ের গোটা সিস্টেমই জড়িত ছিল।

আরও পড়ুনঃকেন টিকল না কেকেআরে তার স্থায়ীত্ব,শাহরুখের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ সৌরভের

জীবনের সব থেকে কঠিন সময় নিয়ে বলতে গিয়ে ওই সাক্ষাৎকারে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন,'আমি একা গ্রেগ চ্যাপেলকে দোষ দিতে চাই না। অবশ্যই কোচই এটা শুরু করেছিল। তবে আমি জানি, অন্যরাও সাধু ছিল না। একজন বিদেশি কোচ, যাঁর দল নির্বাচনে কথা বলার অধিকার নেই, সে একজন ভারত অধিনায়ককে দল থেকে বাদ দিতে পারে না। আমি বুঝেছিলাম যে, গোটা সিস্টেমের সমর্থন ছাড়া এটা সম্ভব নয়। আমাকে বাদ দেওয়ার পিছনে সবাই জড়িত ছিল। তবে আমি চাপের মুখে ভেঙে পড়িনি। নিজের উপর বিশ্বাস হারাইনি। বরং নিজের ক্ষমতার উপর আমার গভীর আস্থা ছিল। সেকারণেই কামব্যাক করতে পেরেছিলাম।'

আরও পড়ুনঃজার্সির রঙে বজায় থাকছে ঐতিহ্য,ভারতীয় ফুটবলে নতুন ইতিহাস এটিকে মোহনবাগান

আরও পড়ুনঃনয়া ইতিহাস গড়বে এটিকে মোহনবাগান, আত্মবিশ্বাসী সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

সাক্ষাৎকারে গ্রেগ চ্যাপেল সম্পর্কেও ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়,'কোচ হঠাৎ করেই আমার নামে নালিশ করে বোর্ডে ই-মেল পাঠায়, যেটা ফাঁস হয়ে যায়। এটা কি কাম্য ছিল? একটা ক্রিকেট দল একটা পরিবারের মতোই। পরিবারের মধ্যে মতপার্থক্য হতেই পারে। তবে সেটা আলোচনার মাধ্যমে মিটিয়ে নেওয়াই উচিত ছিল। তুমি কোচ। তোমার যদি মনে হয় আমার অন্যভাবে নিজেকে উপস্থাপন করা উচিত, তাহলে সেটা আমাকে বলা দরকার ছিল। যখন কামব্যাক করি, তখন চ্যাপেল আমাকে সেটা বলে। তাহলে আগে বললে কী ক্ষতি হত? আসলে এটা শুধু আমার সঙ্গেই নয়, কম-বেশি দলের সবার সঙ্গেই হয়েছিল।' কিন্তু তৎকালীন বিসিসি বোর্ডের বিরুদ্ধে যেভাবে মুখ খুলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে নয়া বিতর্ক। যদিও এখনও বিষয়ে কোনও মুখ খোলেননি তৎকালীন বোর্ডের কর্তারা ও নির্বাচকরা। তবে সৌরভের এই অভিযোগ ঘিরে সরগরম ক্রিকেট মহল।