ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের নির্বাচক প্রধান পদে এমএসকে প্রসাদ ও তাঁর দলের আরও কিছুদিন থাকার সম্ভাবনা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজের পর ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজ খেলবে ভারত। সেই সিরিজের দল নির্বাচনের দায়িত্বে থাকছে এমএসকে প্রসাদরাই। বোর্ড সুত্রে খবর ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড জানুয়ারি মাসে সুপ্রিম কোর্টের শুনানির দিকে তাকিয়ে আছে। কারণ বোর্ডের শেষ বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভায় লোধা কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী বোর্ডের সংবিধানে কিছু বদলের আর্জি করা হয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের কাছে। জানুয়ারিতে সেই আবেদনের শুনানি। বোর্ডের সংবিধান সংশোধন নিয়ে দেশের সর্বোচ্চ আদালত কি রায় দেয় সেদিকে তাকিয়েই পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে চাইছে বিসিসিআই। 

আরও পড়ুন - নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভের জের, রঞ্জি ট্রফির ম্যাচ গুয়াহাটিতে খেলতে চায় না অসম

লোধা কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী বোর্ডের সংবিধানে একাধিক পরিবর্তন হয়েছে। সৌরভরা দায়িত্ব নেওয়ার পর নতুন সংবিধানে কিছু পরিবর্তন চেয়েছে বোর্ড। প্রথমত অফিস বেয়ারারদের কুলিং অফ সংক্রান্ত নিয়মে বদল চাইছে বোর্ড। একই সঙ্গে বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম আলচ্য বিষয়, কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট নিয়েও বদল চেয়েছে বোর্ড। সংবাদ সংস্থা সুত্রে খবর, বিসিসিআই আগামী দিনের জন্য উচ্চ মানের দল নির্বাচক কমিটি গঠন করতে চায়। একই সঙ্গে গঠন করা হবে ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি। আর এই দুটি তৈরির ক্ষেত্রেই একাধিক দিক থেকে বাধা হয়ে উঠছে কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট নিয়ম। সেই নিয়মে বদল হচ্ছে কি না সেটা দেখেই পরবর্তী দল নির্বাচন কমিটি গঠন করতে চাইছে বিসিসিআই। 

আরও পড়ুন - আবার চোট পেয়ে ছিটকে গেলেন ভুবনেশ্বর কুমার, একদিনের দলে শার্দুল ঠাকুর

জানুয়ারির পাঁচ তারিখ থেকে শুরু হবে ভারত-শ্রীলঙ্কা টি-২০ সিরিজ। সেই সিরিজের দল নির্বাচন করবেন এমএসকে প্রসাদরাই। কিন্তু তারপরই থাকছে গুরুত্বপূর্ণ নিউজিল্যান্ড সফরের দল নির্বাচন। সেই দলও প্রসাদরাই বেছে নেন নাকি ততদিনে নতুন কমিটি গঠন করা সেটা দেখার অপেক্ষায় ভারতীয় ক্রিকেট। বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভার শেষেই সভাপতি সৌরভ জানিয়েছিলেন বর্তমান নির্বাচক কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। তাই তাদের সরে যেতে হবে।

আরও পড়ুন - কলকাতায় ৩৩২ ক্রিকেটারের ভাগ্য পরীক্ষা, আইপিএল নিলামের নির্ঘন্ট প্রকাশ করল বোর্ড