ফের ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া পাকিস্তান ক্রিকেটে। ম্যাট গড়াপেটার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠল পাকিস্তানের ক্রিকেটার উমর আকমলের বিরুদ্ধে। চলতি বছরে পিএসএল চলাকালীন গড়াপেটার প্রস্তাব পয়েছেছিলেন উমর আকমল। অভিযোগ বিষয়টি গোপন করে য়ান পাকিস্তান ক্রিকেটার। এরপরই বিষয়টি জানাজানি হতেই উমর আকমলকে জোড়া নিয়মভঙ্গের অভিযোগে তিন বছরের জন্য নির্বাসিত করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

আরও পড়ুন-লকডাউন ভেঙে পার্টি করায় শাস্তি এভার্টন ফুটবলারের,২ সপ্তাহের বেতন কাটা গেল মোয়েস কিনের

চলতি বছর পাকিস্তান সুপার লিগে  কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স দলে ছিলেন উমর আকমল। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারীর জেরে মাঝ পথেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে টুর্নামেন্ট। আকমলের বিরুদ্ধে অভিযোগ,পাকিস্তান সুপার লিগে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি। দুটি ডেলিভারির জন্য তাঁকে দু’লক্ষ ডলারের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। সেই সঙ্গে ভারতের বিরুদ্ধে না খেলার জন্য মোটা অঙ্কের অর্থেরও প্রস্তাব পেয়েছিলেন উমর। কিন্তু দুটি প্রস্তাবই বোর্ডের কাছ থেকে গোপন করে যান তিনি।  চলতি মাসের শুরুতেই আকমল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগের বিরুদ্ধে তিনি কোনও আবেদন করবেন না। 

আরও পড়ুনঃনিজের ইন্টার মিলানে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে এখনও আফসোস করেন প্যান্সভ

আরও পড়ুনঃজামশেদপুর এফ.সি-র ঘরোয়া মাঠটিকে পরিণত করা হল কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে

এরপরই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড মামলাটি শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির কাছে পাঠায়। পিসিবির দুর্নীতিদমন আইনের আর্টিক্যাল ২.৪.৪ অমান্য করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন উমর আকমল। অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ফজল-ই-মিরান চৌহানের নেতৃত্বাধীন শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি পাক তারকাকে তিন বছরের জন্য নির্বাসিত করার কথা ঘোষণা  টুইটারে পিসিবির তরফে জানানো হয়, বোর্ডের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি তিন বছরের জন্য উমর আকমলকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত করল। দেশের জার্সি গায়ে মোট ১৬টি টেস্ট খেলেছেন তিনি। ১২১টি ওয়ানডে এবং ৮৪টি টি-টোয়েন্টিতে দলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। উমর আকমল বিশ্ব ক্রিকেটে নিজের যোগ্যতাও প্রমাণ করেছে। বর্তমানে ৩০ বছর বয়স। এই সময় তিন বছর সমস্ত ধরনের ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হওয়ায় উমর আকমলের কেরিয়ারের খুব বড় ক্ষতি হল বলেই মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।