প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের এথিক্স অফিসার ডি কে জৈন। মধ্যপ্রদেশ ক্রিকেট সংস্থার এক আজীবন সদস্য রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে বোর্ডের কাছে নালিশ করেছিলেন। প্রশ্ন ছিল একটাই। রাহুল বোর্ডের স্বার্থের সংঘাতের নিয়ম ভেঙেছেন। কারণ বোর্ডের ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান হাওয়ার পাশাপাশি রাহুল ইন্ডিয়া সিমেন্টের একজন কর্মী। রাহুলের এই স্বার্থ সংঘাত নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে ভারতীয় ক্রিকেটে। 

আরও পড়ুন - ক্যারিবিয়ানদের ঘরের মাঠে টি২০ সিরিজ পকেটে পুরলো ভারতীয় মহিলা দল

তবে এবার সেই সব প্রশ্ন উড়িয়ে দিলেন বিসিসিআইয়ের এথিক্স অফিসার ডিকে জৈন। বেশ কয়েকদিন থেকেই তিনি এই বিষয়ে কাজ করছিলেন। অভিযোগ খতিয়ে দেখার পাশাপাশি দু’বার রাহুলকে ডেকেও পাঠিয়েছিলেন জৈন। গত মঙ্গলবার ডাকা হয়েছিল রাহুলকে। সেদিন নিজে না এসে আইনজীবীকে পাঠিয়েছিলেন তিনি। আর বৃহস্পতিবার রাতে নিজের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন জৈন। তাঁর সাফ কথা গোটা বিষয় ক্ষতিয়ে দেখার পর তাঁর মনে হয়নি রাহুল কোনও ভাবেই স্বার্থ সংঘাতের নিয়ম না মেনে কোনও কাজ করেছেন। 

আরও দেখুন - সচিন জামানার ৩০ বছর, ইডেন গার্ডেন্সে সেলিব্রেশন ভক্তদের

রাহুলের বিরুদ্ধে যখন এই অভিযোগ উঠেছিল, তখন গোটা দেশের ক্রিকেট মহলই এই নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিল। বর্তমান বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় টুইট করে লিখেছিলেন, ভগবানই বাঁচাতে পারেন ভারতীয় ক্রিকেটকে। তখন ছিল সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসকদের জমানা। তবে প্রশাসক প্রধান বিনোদ রাই চুপ করে বসে থাকেননি। গোটা দেশের ক্রিকেট মহলের প্রতিক্রিয়া দেখে তিনি নিজে একটি নোট দিয়েছিলেন বোর্ডের এথিক্স অফিসারকে। সেই নোটে রাহুলের হয়ে সওয়াল করেছিলেন তিনি। একাধিক মামলার কথা টেনে এনে বুঝিয়েছিলেন তিনি কোনও ভাবেই কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট নিয়ম ভেঙে কোনও কাজ করেননি। 

আরও পড়ুন - সিএবির অনুরোধে সিলমোহর, দিন রাতের টেস্টে কলকাতা সেজে উঠবে গোলাপী আলোয়