করোনা ভাইরাস মহামারীর জেরে দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। যার ফলে গৃহবন্দি অবস্থাতেই জীবন কাটাতে হচ্ছে ভারতের প্রাক্তন থেকে বর্তমান ক্রিকেটারদের। এই অবসরে সোশ্যাল মিডিয়াতেও আগের তেকে অনেক বেশি সক্রিয় হয়েছেন সকলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সামাজিক সচেতনতার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি, বিভিন্ন জায়গায় ইন্টারভিউও দিচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। একে অপরের সঙ্গে লাইভ চ্যাটে দিচ্ছেন জমিয়ে আড্ডা। আবার কখনও একান্তে নস্টালজিক হয়ে পড়ছেন অনেকেই। শেয়ার করছে পুরোনো কিছু স্মরণীয় মুহূর্ত যা কখনই ভুলবার নয়। তেমনই লকডাউনে নস্টালজিক হয়ে পড়লেন বিরাট কোহলিদের হেডস্যার, ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। নিজের ক্রিকেট জীবনের ছবি শেয়ার করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুনঃফের করোনার থাবা লা লিগায়, নতুন করে করোনা আক্রান্ত স্পেনের ৫ ফুটবালর

১৯৮৪ সালে ঘরের মাঠে টেস্টে প্রথম বার সেঞ্চুরি করেছিলেন রবি শাস্ত্রী। ওয়াংখেড়েতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই ইনিংসে করেছিলেন ১৪২। সেই ইনিংসের কথাই উঠে এল জাতীয় দলের প্রধান কোচের স্মৃতিচারণে। সেই টেস্টে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড। লক্ষ্মণ শিবরামকৃষ্ণাণের ছয় উইকেটের সুবাদে ১৯৫ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ড। জবাবে ভারত আট উইকেট হারিয়ে তোলে ৪৬৫। ২৭০ রানের লিড পায় ভারত। ছয় নম্বরে নেমে ৩২৩ বলে ১৪২ করেন শাস্ত্রী। যাতে ছিল ১৭টি চার ও একটি ছয়। সৈয়দ কিরমানি করেন ১০২ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে মাইক গ্যাটিংয়ের ১৩৬ রান সত্ত্বেও ৩১৭ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসেও ছয় উইকেট নেন শিবরামকৃষ্ণাণ। বড় ইনিংসের পাশাপাশি বল-হাতে দুই উইকেটও নেন শাস্ত্রী। ওজেতার জন্য ভারতের দরকার ছিল ৪৮ রান। আট উইকেটে জেতে ভারত। সেই সুখস্মৃতিই উসকে দিয়েছে শাস্ত্রীর টুইট। শাস্ত্রী সেই ইনিংসের দুটো ছবি দিয়ে টুইট করেছেন, “দেশে এটা প্রথম ১০০। আর সেটাও ওয়াংখেড়েতে ১৯৮৪ সালে। নিজের শহরের মাঠে বাবা-মার উপস্থিতিতে যা এসেছিল। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই ১৪২ রানের ইনিংস হয়ে ওঠে ম্যাচ-জেতানো।”  

 

 

আরও পড়ুনঃ১৬ মে নতুন শুরু,তার আগে জেনে নিন বুন্দেসলিগার প্রথম দশ দলের অবস্থান

সম্প্রতি নিজের ফার্ম হাউস থেকেও একটি ছবি শেয়ার করেন রবি শাস্ত্রী। সেখানে অবসর সময়ে নিজের বিয়ার খাওয়ার পার্টনারের নামও জানিয়েছিলেন ভারতীয় দলের কোচ।  তার আগে জানিয়েছিলেন বিরাট কোহলির বর্তমান দল ও কপিল দেবের ৮৩ বিশ্বকাপ জয়ী দলের থেকে ১৯৮৫ সালের অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে বেনসন অ্যান্ড হেজেস ওয়ার্লড চ্যাম্পিয়নশিপ জেতা ভারতীয় দল অনেক বেশি শক্তিশালী। যা নিয়ে তৈরী হয়েছিল বিতর্ক।  তবে দেশের মাটিতে নিজের করা প্রথম সেঞ্চুরির শাস্ত্রীর এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে।

আরও পড়ুনঃশ্রীলঙ্কার পর আরব আমরশাহী,আইপিএল আয়োজন করতে চেয়ে প্রস্তাব বিসিসিআইকে