সময় বদলে গেছে। কিন্তু ভআরতীয় টেস্ট ক্রিকেটের টার্নিং পয়েন্ট বলতে এখনও সবাই বলে থাকেন শেহওয়াগের ওপেনার হিসেবে মাঠে নামাকে। সেই সময় ভারত অধিনায়ক সৌরভের গঙ্গোপাধ্যায়ের একটা সিদ্ধান্ত বদলে দিয়েছিল ভারতীয় টেস্ট দলের চেহারা। বীরেন্দ্র শেহওয়াগও হয়ে উঠেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটের এক নক্ষত্র। আবারও একই রকম একটা পর্যায়ে দাঁড়িয়ে ভারতীয় ক্রিকেট। যেখানে রোহিতের মধ্যে আরও এক শেহওয়াগকে খুঁজে চলেছে ভারতীয় ক্রিকেট। এই পথটাও দেখালেন সৌরভ। টেস্ট ওপেনার নিয়ে যখন ভারতীয় ক্রিকেট সমস্যায় তখন দাদাই প্রথম প্রশ্ন তুলেছিলেন, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সফর ওপেনার রোহিতকে কেন টেস্ট ওপেনার হিসেবে ভাবা হচ্ছে না।  মহারাজের এই কথা উড়িয়ে দিতে পারেনি ভারতীয় ক্রিকেটের থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে এবার টেস্ট ওপেনার রোহিতের মাঠে নামার পালা। 

আরও পড়ুন - প্রায় ২ বছর পর প্রথম দলে ফিরলেন ঋদ্ধিমান, দলে অশ্বিনও

রোহিত প্রস্তুতি ম্যাচে ওপেনার হিসেবে নেমে শূন্য রানে আউট হয়েছেন। এটা দেখার পরই অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, রোহিতকে টেস্ট ওপেনার হিসেবে কতটা সুযোগ দেবে টিম ম্যানেজমেন্ট। তার ওপর বিরাট-রোহিত দ্বৈরথের কথা যখন ময়দানের সরগরম বিষয়। তবে সিরিজ শুরু আগের দিন অভয় দিচ্ছেন ভারত অধিনায়ক। বলছেন লাল বলের ক্রিকেটে রোহিতে পর্যাপ্ত সুযোগ দেবেন তাঁরা। আর সীমিত ওভারের ক্রিকেটে রোহিত যেটা করতে পেরেছেন, সেটা টেস্টে করে দেখাতে পারলে টিম ইন্ডিয়ার ছবিটাই বদলে যাবে, বলছেন বিরাট। 

আরও পড়ুন - চোট সারাতে এবার ইংল্যান্ড পারি দিচ্ছেন বুমরা

 

রোহিতের মধ্যে অনেকেই শেহওয়াগকে খুঁজে নিতে চাইছেন। সেই তালিকাতে আছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। তাই সংবাদ মাধ্যমের প্রশ্ন উত্তরে কোহলি বলছেন, ‘আমরা রোহিতকে কোনও নির্দিষ্ট খেলার স্টাইলে বেঁধে রাখতে চাই না। ওকে নিজের খেলাটা খুঁজে নিতে হবে টপ অর্ডারে। যেমনটা বিরু ভাই একটা লম্বা সময় ধরে করেছে। বিরু ভাইকে কেউ বলেনি লাঞ্চের আগেই সেঞ্চুরি করতে হবে। ওটাই ওঁর স্বাভাবিক খেলা। রোহিতও নিজের স্বাভাবিক খেলাটাই খেলবে।’

আরও পড়ুন - ডিসেম্বরের ১৯ তারিখ কলকাতায় আইপিএল নিলাম, সব থেকে বেশি টাকা নিয়ে আসরে দিল্লি