করোনা ভাইরাস গ্রাস করেছিল গোটা ক্রিকেট বিশ্বকে। অবশেষে ১১৬ দিন পর ৮ জুলাই থেকে মাঠে ফিরেছিল ক্রিকেট। করোনা পরিস্থিতিতে একাধিক নিয়ম বদলে নতুনভাবে মাঠে ফিরেছিল ক্রিকেট। দর্শকশূন্য গ্যালারি, বলে থুতুর ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা, একটি করে পরিবর্ত আরও কত কী। এই ৫ দিন গোটা ক্রিকেট বিশ্বের নজর ছিল সাউদ্যাম্পটনের দিকে। খেলার ফলাফল যাই হোক অবশেষে জিতল ক্রিকেট। টেলিভিশনের পর্দায় ক্রিকেটপ্রেমীরা উপভোগ করলেন লকডাউনের পর প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচের প্রতিটা মুহূর্ত। আর ক্রিকেট তার আপন মহিমায় সকলকে উপহার দিল এক রুদ্ধাশ্বাস ম্যাচ।

আরও পড়ুনঃঘরের মাঠে ব্রিটিশদের হার, চমক দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের শুরু করল ক্যারেবিয়ানরা

সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ঘরের মাঠে হারিয়ে চমক দিল ক্যারেবিয়ানরা। ম্যাচের শেষ দিন ৪ উইকেটে ঐতিহাসিক জয় হোল্ডারের দলের। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।  ম্যাচের পঞ্চম দিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেতার জন্য দরকার ছিল ২০০ রান ৷ হাতে ছিল ১০ উইকেট। ইনিংসের শুরুতে পরপর ৩টি উইকেট হারালেও দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জারমেইন ব্ল্যাকউডের ৯৫ রানের ইনিংস স্টোকসদের বিরুদ্ধে তাঁদের জেতার রাস্তা মসৃণ করে দেয়। আর গোটা ক্রিকেট বিশ্বের মতই এই ম্যাচ টেলিভিশনের পর্দায় দেখে উপভোগ করেন মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকরও। ম্যাচ শেষে ট্যুইটও করেন সচিন। লেখেন,'দুই দলের প্লেয়াররাই অল রাউন্ড পারফরমেন্স করেছে। চাপের মুহুর্তে জার্মেইন ব্ল্যাকউড গুরুত্বপূর্ণ এক ইনিংস খেলল। যা ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে। এছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় সিরিজটিকে একটি আলাদা মাত্রা দিল।'

 

 

আরও পড়ুনঃঅমিতাভ সহ বচ্চন পরিবারের দ্রুত আরোগ্য কামনা ভারতীয় ক্রিকেটারদের

আরও পড়ুনঃবরফের কেক কেটে জন্মদিন পালন জওয়ানদের,সেওয়াগের শেয়ার করা ভিডিও দেখলে চোখের কোণ ভিজবে আপনারও

শুধু সচিন তেন্ডুলকারই নয়, ঘরে বসে এই ম্যাচ উপভোগ করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুরন্ত জয়ে উচ্ছ্বসিত ভারত অধিনায়কও। ক্যারেবিয়ানদের জেয়র পরে তিনিও সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যমে বার্তা দেন। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, 'দুর্দান্ত জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। টেস্ট ক্রিকেটের সেরা একটা ম্যাচ ও বিজ্ঞাপন।' ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরবর্তী দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ম্যাঞ্চেস্টারে।