সভাপতির পদে বসে সৌরভ সবার প্রথম দেশের মাঠে পিঙ্ক বল টেস্টের আয়োজন করেছেন। মহারাজের সিদ্ধান্ত ও পরিকল্পনার বাস্তবায়ন সবার মন জয় করে নিয়েছে। সভাপতি সৌরভের হাত ধরে ভারতীয় ক্রিকেট আরও উন্নতি করবে এমনটাই আশা সবার। পিঙ্ক বল টেস্টের সফল আয়োজনের পর এবার ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড বার্ষিক সাধারণ সভার দিকে ফোকাস করছে। ইতিমধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সৌরভদের যাতে আরও বেশিদিন বোর্ডের পদে রাখা যায় তার জন্য সংবিধান সংশোধনের পথেই হাঁটতে চাইছেন তাঁরা। সব মিলিয়ে বোর্ড সভাপতি পদে সৌরভের কার্যকাল বৃদ্ধির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আর এমন সময়ই সভাপতি সৌরভকে কাছে দলীপ ট্রফির ফরম্যাট বদল করার পরামর্শ দিলেন সচিন। 

আরও পড়ুন - ধোনি সহ সাত ভারতীয় ক্রিকেটারকে চাইল বাংলাদেশ, সিদ্ধান্ত নেবে বিসিসিআই

একটি ইন্টারভিউতে সচিন জানিয়েছেন দলীপ ট্রফিতে ক্রিকেটারদের মধ্যে দলগত সংহতির খুব অভাব চোখে পরে। দলীপ ট্রফি খেলার সময় ক্রিকেটাররা দলের পারফরম্যান্সে কম নজর দেন, বরং অনেক বেশি ফোকাস থাকে নিজেদের পারফরম্যান্সের ওপর। তাই দলীপ ট্রফির ফরম্যাটে বেশ কিছু বদলের পক্ষপাতি সচিন। মাস্টার ব্লাস্টার মনে করছেন মোট ছয় দলের টুর্নামেন্ট করা হোক দলীপ ট্রফিকে। যেখানে রনজি ট্রফির প্রথম চারটি দল থাকবে এবং দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ভাল ক্রিকেট খেলা অনুর্ধ্ব ১৯ ও  অনুর্ধ্ব ২৩ ক্রিকেটাররা অন্য আরেকটি দলে খেলবেন। আরেক দলে থাকবেন ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল পারফর্ম করা ক্রিকেটাররা। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বলে শতরানও শীর্ষ স্থান দিতে পারলো না বিরাটকে, স্মিথের থেকে ৩ পয়েন্ট পিছিয়ে কোহলি

বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান থাকার সময় ঘরোয়া ক্রিকেটের ফরম্যাটে একাধিক বদল করেছিলেন সৌরভ। ২০১৫-১৬ মরসুমেই দলীপ ট্রফি খেলা হয়েছিল পিঙ্ক বলে। তারপর তিনটি মরসুম গোলাপি বলে খেলা হয়েছিল দলীপ ট্রফি। কিন্তু তারপর সেটা বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু সেই সময়ই পিঙ্ক বলে খেলেছিলন মায়াঙ্ক-পূজারারা। তারা সেই অভিজ্ঞতা দেশের প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টে ব্যবহার করতে পেরেছিলেন। আগে দলীপ ট্রফি পাঁচটি জোনের টিমে খেলা হত। তারপর সেটা বদলে এখন অনেকা চ্যালেঞ্জার ট্রফির বিকল্প হিসেবে ইন্ডিয়া, রেড-ব্লু ও গ্রীন তিনটি দলকে নিয়ে খেলা হচ্ছে। সেই ফারম্যাটেই এবার বদল চাইছেন সচিন। 

আরও পড়ুন - সেই ঘটনা অতীত হলেও ভুলিনি, ২৬/১১-র শহিদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে টুইট কোহলির