অধিনায়ক থাকাকালীনও সতীর্থদের সমস্যা বুঝে তাঁদের হয়ে লড়তেন তিনি। বোর্ড মসনদে বসেও সেই ধারাই অব্যাহত রাখলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর হস্তক্ষেপেই আপাতত রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে নামতে হচ্ছে না চোট সারিয়ে ফিরে আশা জশপ্রীত বুমরাকে। সম্ভবত শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি টোয়েন্টি সিরিজেই সরাসরি মাঠে নামবেন ভারতীয় পেস অ্যাটাকের সেরা অস্ত্র।

 চোট সারিয়ে ফিট হয়ে ওঠার পর বৃহস্পতিবার থেকে সুরাটে কেরলের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে গুজরাটের হয়ে নামার কথা ছিল বুমরার। কিন্তু বুমরা নিজে ধীরেসুস্থে টানা বোলিংয়ের ধকল নেওয়ার পক্ষে ছিলেন। যাতে ফের তাঁকে চোটের কবলে পড়তে না হয়। কিন্তু রঞ্জির ট্রফির চারদিনের খেলায় সেই সুযোগ কম। একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, নিজের উদ্বেগের কথা বোর্ড সচিব জয় শাহ এবং সভাপতি সৌরভকে জানিয়েছিলেন বুমরা। দু' জনেই তাঁকে আপাতত সাদা বলে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে মন দেওয়ার পরামর্শ দেন। 

আরও পড়ুন- ফের অধিনায়ক ধোনি, ক্যাঙ্গারুর দেশ থেকে এল বিরল সম্মান

আরও পড়ুন- অধিনায়কের কাছে হারলেন রোহিত, পর পর চার বছর নজির বিরাটের

জানা গিয়েছে, ভারতীয় দলের নির্বাচকদের তরফে গুজরাট টিম ম্যানেজমেন্টকে অনুরোধ করা হয়েছিল, যাতে কেরল ম্যাচে বুমরাকে দিনে আট ওভারের বেশি বোলিং না করানো হয়। কিন্তু গুজরাট দলের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, রঞ্জির ট্রফির গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে একজন বোলারকে খেলিয়ে দিনে মাত্র আট ওভার বোলিং করালে দলের ক্ষতি হবে। ফলে বুমরা খেললে তাঁকে আরও বেশি বোলিং করতে হবে বলেই জানিয়ে দেয় গুজরাট টিম ম্যানেজমেন্ট। 

এর পরেই সৌরভ সিদ্ধান্ত নেন, সাধারণ নিয়ম সরিয়ে রেখে সরাসরি বুমরাকে নতুন বছরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি টোয়েন্টি সিরিজেই মাঠে নামার সুযোগ দেওয়া হবে। সূত্রের খবর, ভারতীয় দলের মাথারাও চাইছিলেন না যে চোট সারিয়ে ফিরেই রঞ্জি ট্রফির খেলায় সারাদিন বল করুন বুমরা। 

বিসিসিআই- এর একটি সূত্র দাবি করেছে, আগামী বছর ২১ ফেব্রুয়ারির আগে ভারতের কোনও টেস্ট ম্যাচ নেই। ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট খেলবে ভারত। ফলে লাল বলের ক্রিকেটের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য অনেকটাই সময় পাবেন ভারতের সেরা পেস অস্ত্র। তার আগে টি টোয়েন্টি সিরিজে খেলে লম্বা বিরতির পর আন্তজার্তিক ক্রিকেটে ধীরে সুস্থে ফেরার সুযোগ পাবেন বুমরা। তার পর সম্ভব হলে তিনি একটি রঞ্জি ট্রফির ম্যাচ খেলে দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ড উড়ে যাবেন।