করোনা ভাইরাসের থাবায় নাজেহাল ক্রীড়া বিশ্ব। এর আগে বিশ্বের একাধিক ফুটবলার এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তালিকায় রয়েছেন তারা ফুটবলাররাও। শুধু আক্রান্ত নয় মৃত্যু হয়ছে একাধিক ফুটবলার, কোচ ও ক্লাব কর্তাদের। শুধু ফুটবলাররাও নয়, করোনা প্রকোপ থেকে বাদ য়ায়নি ক্রিকেটাররাও। একাধিক ক্রিকেটার আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি মৃত্যু হয়েছে পাকিস্তানের একজন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারের। এবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন আরও এক ক্রিকেটার। নাম সোলো এনকোয়েনি। দক্ষিণ আফ্রিকার অনুর্ধ্ব ১৯ দলের হয়ে খেলেছেন এই ক্রিকেটার।

আরও পড়ুনঃচুক্তিভঙ্গের অভিযোগে কোয়েসের বিরুদ্ধে ফিফায় অভিযোগ জানাতে চলেছেন মারিও রিভেরা

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম শ্রেণির এই ক্রিকেটার অনেকদিন ধরেই একাধিক রোগে ভুগছেন। ২৫ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার বর্তমানে স্কটল্যান্ডে রয়েছেন। সেখানে তার গুইলএইন ব্যরে সিনড্রমের চিকিৎসা চলছে তার। এই রোগে নার্ভের উপর চাপ পড়ে। ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। সেই রোগ থেকে এখনও সেরে উঠতে পারেননি তিনি। আর তার মধ্যেই করোনার জীবাণু থাবা বসিয়েছে তাঁর শরীরে। বৃহস্পতিবার টুইট করে এনকোয়েনি নিজের যন্ত্রণা তুলে ধরেছেন সোলো এনকোয়েনি। লিখেছেন, “গত বছর আমার জিবিএস হয়। গত ১০ মাস ধরে এই রোগের সঙ্গে লড়াই করে চলেছি। এখনও পর্যন্ত লড়াইয়ের অর্ধেক রাস্তাই পার হতে পেরেছি। এরপরই টিবি হয়। লিভার আর কিডনি নষ্ট হয়ে যায়। এবার করোনা পরীক্ষাতেও রিপোর্ট পজিটিভি এসেছে। বুঝতে পারছি না, আমারই কেন এই সবকিছু হচ্ছে।” গত বছর চার সপ্তাহ কোমায় ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলা এনকোয়েনি। ওয়ারিয়র্স ফ্র্যাঞ্চাইজির জার্সি গায়েও খেলেছেন তিনি।

 

 

আরও পড়ুনঃছবিতে লারার সঙ্গে তারকা ক্রিকেটারকে চিনতে পারছেন,ট্রোল করলেন স্বয়ং ক্রিকেটের রাজপুত্র

আরও পড়ুনঃদর্শকশূন্য মাঠে তৈরি হবে না ম্যাজিকাল মুহূর্ত, মন্তব্য বিরাট কোহলির

সোলো এনকোয়েনির করোনা আক্রান্তের খবর প্রকাশ্যে আসতেই উদ্বেগ বেড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট মহলের। ভারত সফর থেকে ফেরার পর দক্ষিণ আফ্রিকার সব প্লেয়ারদের কোভিড ১৯ পরীক্ষা হয়েছিল। সকলেরই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে সোলো এনকোয়েনি করোনায় আক্রান্ত হলেন। তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড। করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত পাক ক্রিকেটার জফর সরফরাজ এবং আক্রান্ত স্কটিশ ক্রিকেটার মাজিদ হকের পর এনকোয়েনিই তৃতীয় ক্রিকেটার, যাঁর শরীরে মিলল এই মারণ ভাইরাস।