সামনে একাধিক পরিকল্পনা নিয়ে নতুন মরশুমে নামার ভাবনা 'সারে' ক্রিকেট কাউন্টি ক্লাবের। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে ওভাল স্টেডিয়ামে ৬০০০ আসনসংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। সারের চিফ একজিকিউটিভ রিচার্ড গুল্ড এই কথা জানিয়েছেন। ২৫,৫০০ দর্শকআসন যুক্ত মাঠটি ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে একটি টেস্টও আয়োজন করার কথা ছিল। জুন মাসে হওয়ার কথা ছিল সেই টেস্ট ম্যাচটি। কিন্তু করোনা সংক্রমণের জেরে সেই ম্যাচও পিছিয়ে গিয়েছে। 

আরও পড়ুনঃশুরু হচ্ছে লা লিগা,করোনায় মৃতদের উৎসর্গ করা হবে প্রথম ম্যাচ

এর মধ্যেই সেদেশের সরকার দেশের অন্যান্য কিছু খেলা জুন মাস থেকেই ফেরানোর অনুমতি দিয়ে দিয়েছে। ক্রিকেটের ক্ষেত্রে যদিও খানিকটা ব্যাতিক্রম দেখা গেছে সেই নিয়মে। মার্চ মাস থেকে বন্ধ থাকা ক্রিকেট ফিরতে পারে জুলাই মাসের প্রথম দিকে। একটি সাক্ষাৎকারে গুল্ড জানিয়েছেন সেই সময় থেকেই প্রতি স্টেডিয়ামেই স্টেডিয়ামের ধারনক্ষমতার ২৫ শতাংশ বা তারও কম দর্শক বসার ব্যবস্থা করা হবে। 

আরও পড়ুনঃবিশ্বকাপ অন্যত্র সরানোর আইসিসির হুমকি মেলে একেবারেই বিচলতি নয় বিসিসিআই

আরও পড়ুনঃকোন পথে এখনও আইপিএল হওয়া সম্ভব তা জানালেন অনিল কুম্বলে ও ভিভিএস লক্ষ্মণ

ব্রিটিশ মিডিয়া জানিয়েছে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড ম্যানচেস্টার এবং সাউদাম্পটনে পরিশোধিত স্টেডিয়াম তৈরির ব্যবস্থা করছে। আগস্টে ইংল্যান্ড ট্যুরে আসার কথা পাকিস্তানের। তাদের সেই স্টেডিয়ামে খেলানোর ব্যবস্থা করা হবে। জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের, ইংল্যান্ড ট্যুরের কি ব্যবস্থা হবে তা নিয়ে এখনও কোনও কথা এগোয়নি।