কর মকুব সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান না করলে আগামী বছর ভারতের মাটি থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হবে। বুধবার ঠিক এই ভাষাতেই বিসিসিআইকে হুঁশিয়ারী দিয়ে মেল করেছিল আইসিসি। বিসিসিআইয়ের মেলের ভাষাকে অনেক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ হুমকি মেলও বলেছেন। বিশ্বকাপের কর মকুব নিয়ে এর আগেও সংঘাতে জড়িয়েছে বিসিসিআই ও আইসিসি।  ২০১৬ সালে ভারতে হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও কর-মকুব করতে ব্যর্থ হয়েছিল বোর্ড। যার ফলে ২০-৩০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতি হয়েছিল আইসিসি-র। এ বার বোর্ড যদি কর-মকুব নিশ্চিত করতে না পারে তা হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতি হতে পারে বিশ্বক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার। তাই মেলে আইসিসির তরফে জানানো হয়েছে,ভারত থেকে আয়োজনের দায়িত্ব সরিয়ে নেওয়ার এক্তিয়ার আইসিসি-র রয়েছে। 

আরও পড়ুনঃকোন পথে এখনও আইপিএল হওয়া সম্ভব তা জানালেন অনিল কুম্বলে ও ভিভিএস লক্ষ্মণ

১৮ মে পর্যন্ত কর-মকুব নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মেটানোর সময় দেওয়া হয়েছিল বিসিসিআইকে।বিসিসিআইয়ের তরফে যুক্তি দেওয়া হয়েছে করোনা ভাইরাস অতিমারীর কারণে দেশ জুড়ে এখন চতুর্থ জফার লকডাউন চলছে। এই অবস্থায় আইসিসির কাছে ৩০ জুন পর্যন্ত সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন করেছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। আইসিসি-র তরফে জোনাথন হল এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন,'বিসিসিআই-এর হাতে অনেক সময় ছিল কর-মকুব নিশ্চিত করার জন্য। প্রতিযোগিতার দেড় বছর আগে তা হয়ে যাওয়ার কথা। যা ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে হওয়া উচিত ছিল। এখন বোর্ড ৩০ জুন বা লকডাউন শেষ হওয়ার একমাস পরের মধ্যে যেটা দেরিতে, সেই পর্যন্ত সময় চাইছে। যা আইসিসি বিজনেস কর্পোরেশন দিতে রাজি হচ্ছে না।'

আরও পড়ুনঃকেন ঘুসি মেরে স্টিভ ওয়ার কেরিয়ার শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন তিনি,জানালেন ক্যারেবিয়ান পেসার

আরও পড়ুনঃকেকেআরের ভুলে অপমানিত মনোজ তিওয়ারি,পরে ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা নাইটদের

আইসিসির এহেন মেলে সকলেই ভেবেছিল বিশ্বকাপ হাতছাড়া হওয়ার আতঙ্ক গ্রাস করবে বিসিসিআইকে। কিন্তু   কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থার এই হুমকিতে একেবারেই বিচলিত নয় ভারতীয় বোর্ড। সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এক কর্তা বলেছেন, কর মকুব সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই। বিষয়টি নিয়ে সরকার পক্ষের সঙ্গে আলোচনা চলছে। যথাসময়েই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। বিসিসিআই কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধূমল জানিয়ে দিয়েছেন, এতে চিন্তার কোনও কারণ নেই। টুর্নামেন্ট সরে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। বিসিসিআই সরকারের সঙ্গে আলোচনা করছে। এটা একটা প্রক্রিয়া। যা চলছে। টুর্নামেন্ট সরে যাওয়ার কোনও ঝুঁকি নেই।