বিশ্ব জুড়ে ক্রমেই বাড়ছে করোনা ভাইরাস মহামারীর আতঙ্ক। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। ভারতের পরিস্থিতিও ক্রমেই উদ্বেগজনক হয়ে উঠছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। করোনা যুদ্ধে প্রথম থেকেই সক্রিয় দেশের ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা। তাদের মধ্যে অন্যতম ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তার স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা। করোনা মোকাবিলায় সরকারের একাধিক সিদ্ধান্তকে খোলাখুলি সমর্থন করেছে এই সেলেব দম্পতি। করোনা যুদ্ধে দিয়েছেন অনুদানও। এছাড়া একাধিকবার সামাজিক সচেতনতার বার্তাও দিয়েছে বিরুষ্কা। 

আরও পড়ুনঃআর্থিক ক্ষতি সামাল দিতে ভারতের বিরুদ্ধে ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে আগ্রহী অস্ট্রেলিয়া

লকডাউন চলার লকারণে সম্প্রতি এক অনলাইন ক্লাসেও যোগ দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা। সেখানে বিরাট কোহলি বলেন যে, করোনাভাইরাস মানুষকে অনেক বেশি সহানুভূতিশীল করে তুলেছে। একইসঙ্গে জাতীয় দলের অধিনায়ক বলেছেন কোভিড-১৯ যে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি করেছে, তার থেকে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা নিতে হবে। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের চ্যালেঞ্জ নিয়েও মুখ খুলেছেন বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা। সেখানে তিনি বলেছেন, “এই সঙ্কটের মধ্যে ইতিবাচক দিক হচ্ছে যে, সামাজিক ভাবে আমরা অনেক বেশি সহানুভূতিশীল হয়ে উঠেছি। এই যুদ্ধে যাঁরা সামনে দাঁড়িয়ে লড়ছেন, তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তা সে পুলিশের প্রতিই হোক বা ডাক্তার-নার্সদের প্রতি। আশা করব, করোনা-সঙ্কট কেটে যাওয়ার পরও সেই কৃতজ্ঞতা থাকবে।”

আরও পড়ুনঃএই মরসুমের জন্য সিঁরি আ বাতিলের আবেদন জানাল সাতটি ইতালিয়ান ক্লাব

আরও পড়ুনঃবিপর্যয়ের মোকাবিলায় কোচ এবং খেলোয়াড়দের মাইনে কমানোর সিদ্ধান্ত নিল আর্সেনাল ফুটবল ক্লাব

বিশ্ব জুড়ে মৃত্যুর মিছিল থেকে কী শিক্ষা নেওয়া উচিত, তা জানিয়ে দিয়েছেন বিরাট। তাঁর মতে, “জীবন হল অনিশ্চিত। তাই, যাতে আনন্দ পাওয়া যায়, সেটাই করা উচিত। সব সময় তুলনা টানা তাই উচিত নয়। এর পর জীবন বদলে যাবে।” অনুষ্কা শর্মা বলেছেন, “সবার কাছেই এটা শিক্ষার। কারণ ছাড়া কিছুই ঘটে না। যদি সামনের সারিতে কেউ কাজ না করতেন, তবে আমরা কিছুই পেতাম না। এটা বোঝাচ্ছে যে সবাই সমান, কেউ স্পেশ্যাল নয়। স্বাস্থ্যই হল সব কিছু। সামাজিক ভাবে এখন আমরা অনেক বেশি সংযুক্ত।” এছড়াও করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য সকতকে সচেতন, সুস্থ ও দায়িত্বশীল হওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন বিরুষ্কা। একিসঙ্গে লকডাউন মেনে চলার পরামর্শও দিয়েছেন বিরাট কোহলি  ওঅনুষ্কা শর্মা।