ব্যাটিং বা বোলিংয়ের মাধ্যমে বিপক্ষের মন ভয় ধরানোর ক্ষমতা বরাবরই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটারদের। তা সে ম্যালকম মার্শাল, ক্লাইভ লয়েড থেকে শুরু করে কার্ল হুপার, ওয়ালশ হয়ে ক্রিস গেইল হোক বা ব্র্যাভো, পোলার্ড, রাসেল। প্রত্যেক প্রজন্মের ক্যারেবিয়ান ক্রিকেটাররাই মাঠে শান্ত স্বভাবের। খেলাটাকে উপভোগ করতেও ভালবাসেন তারা। মেজাজ হারাতে খুবক একটা দেখা যায় না তাদের। কিন্তু এমন এক ঘটনার কথা ফাঁস করলেন প্রাক্তন ক্যারেবিয়ান পেসার কার্টলি অ্যামব্রোজ  যা শুনে একটু হলেও ভয়ভীত ক্রিকেট বিশ্ব। প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ ওয়াকে এক ঘুসি মেরে ক্রিকেট কেরিয়ার শেষ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন অ্য়ামব্রোজ। ২৫ বছর আগে ত্রিনিদাদে অনুষ্ঠিত ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট ম্যাচে অ্যামব্রোজের রুদ্রমূর্তি কেন  দেখেছিল ক্রিকেটবিশ্ব, ইয়ন বিশপের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় সেই ঘটনার কথা জানালেন অ্যামব্রোজ।

আরও পড়ুনঃফাঁকা মাঠে ফুটবল খেলাটা অদ্ভুত, মনে হচ্ছে সব শূন্য থেকে শুরু হচ্ছে, মন্তব্য মেসির

মাঠে শান্ত স্বভাবের বলে পরিচিট কার্টলি অ্যামব্রোজও। তবে সেই টেস্টের কথা বলতে গিয়ে ‘লিটল বার্ড’ বলে পরিচিত ক্যারিবিয়ান পেসার বলেন,'বহু বছর ধরে স্টিভের সঙ্গে আমারা লড়াই চলছিল। প্রতিপক্ষ হিসেবে খুবই কঠিন ও। লড়াইটা আমি উুভোগও করতাম। কিন্তু ওই টেস্ট ম্য়াচে আমাকে লক্ষ্য করে বিতর্কিত কিছু বলে ওয়া। আমি শুনতে না পেয়ে ওয়াকে জিজ্ঞাসা করি, আমাকে কিছু বললে? স্টিভ তার পালটা উত্তরে বলে আমার য়া মন চায় তাই বলতে পারি। ওয়র কথা আমার ভাল লাগেনি। আমি ভেবেছিলাম, আমার আরও শ্রদ্ধা পাওয়া উচিত ছিল। এরপরই আমি লাগাতার ওকে বাউন্সার দেওয়া শুরু করি। ওয়াকে আমাকে উত্তেজিত করতে থাকে। মেজাজ হারিয়ে কয়েকবার তেড়েও যাই ওয়ার দিকে। ফলে মাঠের মধ্যে খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সেই সময় আমি ওয়াকে লক্ষ্য করে বলি,  সেই সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক রিচি রিচার্ডসন কোনওরকমে সামলান বাকরুদ্ধ অ্যামব্রোজকে। আমার ক্রিকেট কেরিয়ার এই মুহূর্তেই শেষ হয়ে যেতে পারে। তাতে আমার কিছু যায় আসে না। তবে একটা ঘুসি মেরে তোমার কেরিয়ার আমি শেষ করে দিতে পারি। আর তুমি কোনওদিনও খেলতেই পারবে না।' পর পরিসস্থিতি বেগতিক দেশে সেই সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক রিচি রিচার্ডসন কোনওরকমে সামলান বাকরুদ্ধ অ্যামব্রোজকে ও পরিস্থিতি সামাল দেন। ওয়া ও অ্যামব্রোজের সেই বাদানুবাদ নিয়ে আজও আলোচনা হয় ক্রিকেট বিশ্বে। কিন্তু মাঠের বাইরে কখনই দুই ক্রিকেটারের সম্পর্কে কোনও ফাটল ধরেনি। ওই ঘটনার পর একাধিকবার ওয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ হলেও, দুজনেই এড়িয়ে গিয়েছেন ঝামেলার বিষয়টি।

আরও পড়ুনঃআমফান মোকাবিলায় আর্থিক সাহায্য কেকেআরের, শহরজুড়ে বৃক্ষরোপণ করবে কিং খানের দল

আরও পড়ুনঃগাব্বায় ভারত-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট,অ্যাডিলেডে হবে ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্ট