২০১৯-২০ মরসুমে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে উঠেও স্বপ্ন পূরণ হয়নি বাংলা দলের। ১৯৯০ সালে পর ট্রফি জয়ের স্বপ্নে বুক বাধলেও ফাইনালে সৌরাষ্ট্রের কাছে হারে তা অধরাই থেকে গেছে। গত মরসুমে দুরন্ত বোলিং করলেও, টপ অর্ডারের ব্যাটিং ফর্ম চিন্তার কারণ ছিল কোচ অরুণ লালের দলে। ফাইনালেও সেই সমস্যা ভুগিয়েছে বাংলা দলকে। যার ফলে প্রথম ইনিংসে লিডের সৌজন্যে রঞ্জি চ্যাম্পিয়ন হয় অধনায়ক জয়দেব উনাদকটের সৌরাষ্ট্র। পরের মরসুম শুরু আগেই বিগত মরসুমের ভুল, ত্রুটিগুলি শুধরে নিতে মরিয়া বেঙ্গল থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। এবার অনলাইনেই বাংলার ব্যাটসম্যানদের ক্লাস নেবেন ভিভিএস লক্ষ্মণ।

আরও পড়ুনঃ'টিম মাস্ক ফোর্স',করোনার বিরুদ্ধে সচেতনতা গড়তে নয়া দল,যোগ দিতে পারেন আপনিও

করোনা ভাইরাস সমক্রমণের জেরে দেশ জুড়ে চলছে লকডাইন। বন্ধ সমস্ত ক্রিকেট, ফুটবল থেকে শুরু সমস্ত স্পোর্টিং ইভেন্টা। বন্ধ ক্রিকেটারদের অনুশীলনও। ঘরবন্দি অবস্থাতেই জীবন কাটাচ্ছেন সকলে। কিন্তু পরের মরসুমের জন্য গুছিয়ে নামতে চাইছে সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া। তাউ ক্রিকেটারদের জন্য অনলাইন কোচিংয়ের ব্য়বস্থা করা হয়েছে। অনলাইনের সকলের ক্লাস নেবেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটাার ভিভিএস লক্ষ্মণ। তাও আবার একসঙ্গে নয় একজন, একজন করে সকলের সঙ্গে অনলাইনে কথা বলবেন লক্ষ্ণণ। সেখানে অভিষেক, অভিমন্য, মনোজ, অর্ণব,কৌশিক, শ্রীবৎসদের ভুল ত্রুটি শুধরে দেবেন বাংলার ব্যাটিং পরামর্শদাতা। ইতিমধ্যেই গত মরসুমের ভিডিও জোগারের কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। নোট ডাউন করা চলছে কোন ব্যাটসম্যান কোন জায়গায় দুর্বল, কোন সট খেলতে গিয়ে বারবার আউট হচ্ছেন, টেকনিকেই বা কী কী দুর্বলতা রয়েছে সবকিছু।

আরও পড়ুনঃএবার করোনার থাবা ২০২২ কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে,আক্রান্ত স্টেডিয়াম নির্মাণে নিযুক্ত মোট ৮ শ্রমিক

আরও পড়ুনঃব্যাপক আর্থিক সংকটে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া,৮০ শতাংশ কর্মীকে পাঠানো হচ্ছে ছুটিতে

যদিও পরের মরসুম সঠিক সময় শুরু করা যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েই যাচ্ছে। কারণ দেশ জুড়ে যেভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে তাতে পরিস্থিতি কবে আবার সঠিক হবে তা কেউ জানে না। তবুও হাল ছেড়ে বসে থাকতে নাারাজ সিএবি কর্তারা। গোটা দলকে অনলাই ন ট্রেনিংয়ের পাশাপাশি বাড়িতেই ফিট থাকার জন্য যাবতীয় উপায় অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। সিএবি কর্তারা মনে করছেন এই অবসর সময়ে লক্ষ্মণের অনলাইন ক্লাস কাজ দেবে বাংলার ব্যাটসম্যানদের।