করোনার জেরে আইপিএলের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত। অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্থগিত হয়ে গিয়েছে আইপিএল টোয়েন্টি-টোয়েন্টি। আদৌ টুর্নামেন্টি হবে কিনা তা নিয়েও রয়েছে বড়সড় প্রশ্ন। কোটি কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলিকে। যা রাতের ঘুম কেড়েছে অনেক দলের কর্তাদের। কিন্তু অন্যান্য দলের থেকে হয়তো একটু আলাদাই কলকাতা নাইট রাইডার্স। ক্ষতি তো কি হয়েছে। কুছ পরোয়া নেহি। ক্ষতি নিয়ে কম বেশি দুঃশ্চিন্তা থাকলেও, এই আকালের বাজারে আরও একটি টুর্নামেন্টে নতুন দল কেনার ইচ্ছা প্রকাশ করল কেকেআর কর্তা। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে অবার নাইটরা পারি দিতে পারি ইংল্যান্ড।

আরও পড়ুনঃকপিল দেব,বিরাট কোহলির দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে ৮৫-র ভারতীয় দল,মন্তব্য রবি শাস্ত্রীর

ক্রিকেট ব্যবসায় এর আগেই বিদেশে পারি দিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। ক্য়রেবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ও দক্ষিণ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে কেপটাউনের দলটি রয়েছে নাইটদের। এবার তাদের নজর ব্রিটেনের বাজারে। ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের উদ্যোগে যে ১০০ বলের ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে, তাতেও নাকি বিনিয়োগ করতে চলেছে নাইটরা। বুধবার এই জল্পনা উসকে দিয়েছেন খোদ কেকেআর সিইও তথা দলের সহ-কর্ণধার বেঙ্কি মাইশোর। তিনি জানিয়েছেন, ব্রিটেনের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ থেকে ঠিকমতো প্রস্তাব পেলে ভেবে দেখবেন তাঁরা। 

আরও পড়ুনঃ১৬ মে থেকে জার্মানিতে ফিরছে ফুটবল,তার আগে জেনে নিন বুন্দাসলিগার সেরা ১০ লেজেন্ড কারা

আরও পড়ুনঃবোলরদের চিন্তা কমাতে লালা-ঘামের পরিবর্তে বল পালিশে নতুন পদ্ধতি আনছে কোকাবুরা

আইপিএল এবং বিগ ব্যাশের মতো লিগকে টেক্কা দিতে নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ আনছে ইসিবি এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। তবে ২০ ওভারে নয়, এই লিগটিতে খেলা হবে একশ বলে। নাম দেওয়া হয়েছে ‘দ্য হানড্রেড’। অংশ নেবে আটটি দল। এবছর জুন-জুলাইয়েই টুর্নামেন্টটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার জেরে তা পিছিয়ে দিতে হয়েছে। এর ফলে বড়সড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে ইসিবি। সেই লোকসান পোষাতে আগামী বছর লিগে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগে ছাড় দিতে পারে ইসিবি। সুযোগ বুঝে দল কেনার জন্য ঝাঁপাতে পারে কেকেআর।বেঙ্কি মাইশোর বলছেন, আমিও শুনেছি বেশ কিছু খবর ছড়িয়েছে। সবটাই এখনও জল্পনা। তবে, ঠিকঠাক প্রস্তাব পেলে আমরা সেই প্রস্তাবে আলোচনা করে দেখব। দল কেনার সম্ভাবনা উসকে দিয়ে বেঙ্কি বলছেন, আমরা আইপিএলের সবচেয়ে বড় ব্র্যান্ড। সম্ভবত একমাত্র ব্র্যান্ড যাদের বিশ্বজুড়ে খ্যাতি আছে। স্বাভাবিকভাবেই সব দল আমাদের সাথে নিজেদের নাম জুড়তে চায়।