পুণে টেস্ট শুরু হওয়ার আগে সবাই কথা বলছিলেন উইকেট নিলে। কারণ ২০১৭ সালে শেষবার ভারত অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ টিকেছিল ৩ দিন। এবার ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ টিকল সাড়ে তিনদিন। তবে এবার আর উইকেট নিয়ে কথা হচ্ছে না। বরং উইকেট কিপার এবার সবার ফোকাসে। ২০১৭ সালে পুণে টেস্টে উমেশ যাদবের বলে ঋদ্ধিমান সাহা একটি অনবদ্য ক্যাচ নিয়েছিলেন। তারপর থেকেই তাঁর নাম হয় সুপারম্যান সাহা। সেবার অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন ও’কিফ ছিলেন উমেশ-ঋদ্ধি জুটির শিকার। 

 

আরও পড়ুন - তল খুঁজে পেল না দক্ষিণ আফ্রিকা, পুণেতে প্রোটিয়াদের ইনিংসে হারিয়ে সিরিজ জিতল বিরাটের ভারত


এবারও ছবিটা একই রকম। উমেশের বলে দি ব্রুইনের খোঁচা লেগ সাইডে ঝাঁপিয়ে পড়ে হাতে তুলে নিলেন বাংলা ক্রিকেটার। দুটো ছবিকে পাশাপাশি রেখে নেট দুনিয়ায় শুরু হয়ে যায় তুলনা। সুপারম্যান সাহার কোচ ক্যাচটা বেশি ভাল? পুণে এবারও নিরাশ করল না বাংলার ছেলেকে। ঋদ্ধির এই ক্যাচ ভারতীয় দলের জয়ের রাস্তা আরও যেন মসৃণ করে দিল। ম্যাচ শেষে তাই অধিনায়ক বিরাটের প্রশংসাও পেলেন পাপালি। 

 

আরও পড়ুন - বিরাটের কথার মান রাখলেন ঋদ্ধি, প্রমাণ করলেন তিনিই সেরা


কিন্তু এমন উইকেটকিপিংয়ের রহস্যটা কি? ম্যাচ শেষে উমেশকে পাশে নিয়ে ঋদ্ধি বলছেন, ‘উমেশ, সামি, ইশান্তরা তাঁকে অনুশীলন করান।’ তাই হয়তো ওদের বল কোন দিকে মুভ করছে সেটা বুঝতে অসুবিধে হয় না। তবে মাঠে নেমে পারফর্ম করার জন্য চাই ফিটনেস। দলের সাপোর্ট স্টাফরা যে ফিটনেস ট্রেনিং করান সেটাকেও কৃতিত্ব দিচ্ছেন বাংলার পাপালি। ঋদ্ধিকে পাশে দাঁড় করিয়ে উমেশ যাদবও বলছেন, এই দুটো উইকেট ঋদ্ধিমানের। ওকে তিনি ট্রিট দেবেন। 

আরও পড়ুন - ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট ম্যাচের মাঝেই শর্ট স্কোয়ার লেগে দুরন্ত ক্যাচ ভিভিএস লক্ষ্মণের

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ খেলেত নামার আগে  প্রশ্ন ছিল ঋদ্ধি না ঋষভ? আরও একটা সিরিজ জয়ের দিন আপাতত  উইকেটকিপার নিয়ে প্রশ্ন ওঠার রাস্তাটাও বন্ধ করে দিলেন বাংলার ক্রিকেটেরা।