সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে এনসিআরবি-র রিপোর্ট। সেখানেই দেখা গিয়েছে ২০১৭ সাল থেকে ২০১৮ সালে নারী নির্যাতনের পরিসংখ্যা বেড়েছে ১.৩ শতাংশ। এমনই পরিস্থিতিতে মুক্তি পেয়েছে ছপাক। ১০ জানুয়ারি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে এই ছবি। যেখানে দীপিকা পাড়ুকোন অ্যাসিড আক্রান্তের ভূমিকাতে অভিনয় করেছেন। 

আরও পড়ুনঃ ব্যাগ হারিয়ে ক্ষুব্ধ সোনম, ক্রোধের মুখে ব্রিটিশ বিমান পরিষেবা

 

 

ছবির গল্প সত্য ঘটনা অবলম্বণে। বাস্তবের বুকে থাকা লক্ষ্মী আগরওয়ালের জীবন যুদ্ধের কাহিনিই তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে। অ্যাসিড আক্রান্তে পর মানুষের জীবন কীভাবে বদলে যেতে পারে তারই একটি জীবন্ত উদাহরণ হলেন লক্ষ্মী আগরওয়াল। তাঁর জীবনী নিয়েই পর্দায় ছপাক তৈরি করেছেন পরিচালক মেঘনা। এই ছবি বাস্তবের পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয়। তাই প্রথম দিন থেকেই করমুক্ত করা হল একাধিক রাজ্যে। 

 

 

ছবি মুক্তির মুখেই মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ ও ছত্রিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল ছপাককে নিজ রাজ্য করমুক্ত করলেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি পোস্ট দিয়ে এই খবর জানালেন দুরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁদের মতে দেশের সকলের দেখা উচিত এই ছবিটি। কমলনাথ লেখেন,  'আমি এই ছবিকে আমার রাজ্যে করমুক্ত করছি। এই ছবি সমাজে একটা ইতিবাচক বার্তা দেবে।' অন্যদিকে ভূপেশ বাঘেল লেখেন, 'সকলের কাছে আমার অনুরোধ সমাজ কে সচেতন করতে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে এই ছবি দেখে আসুন।'