একজন দেশের জার্সি গিয়ে রক্ষণে দায়িত্ব নিয়েছেন ভারতীয় ফুটবল দলের। তার শারীরিক দক্ষতা, কড়া ট্যাকেল, বল ক্লিয়ার ও হেডের দক্ষতার কথা সকলেই জানেনে। সন্দেশ ঝিঙ্গান ডিফেন্সে থাকলে বিপক্ষের স্ট্রাইকারকে কাল ঘাম ঝড়াতেই হয় গোলের মুখ খোলার জন্য। অপরদিকে আরেক জন  ডিফেন্ডার ও গেলকিপারকে বোকা বানিয়ে নেটে বল জড়াতে সিদ্ধহস্তক। ভারতে মহিলা ফুটবল এখনও তেমন জনপ্রিয়তা লাভ না করলেও, ভারতীয় মহিলা দলের স্ট্রাইকার বালা দেবী এখন অনেকর কাছেই রোল মডেল। বিগত বছরগুলোতে দেশের জার্সি গায়ে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের কথা মাথায় রেখেই এই দুই ফুটবলারের নাম অর্জুন পুরস্কারের জন্য মনোনীত করল এআইএফএফ। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের নির্দেশ মেনে অর্জুনের জন্য মঙ্গলবারই দুই ফুটবলারের মনোনয়ন পাঠিয়ে দিয়েছে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। পিটিআই’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এআইএফএফ সচিব কুশল দাস জানিয়েছেন, ‘ধারাবাহিক পারফরম্যান্স পর্যালোচনা করে আমরা এই বছরে আমরা সন্দেশ ও বালা দেবীর নাম অর্জুন পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন করেছি। অর্থাৎ একজন পুরুষ এবং একজন মহিলা।’ 

আরও পড়ুনঃ'সচিন সকলের কাছে রোল মডেল, তবে রান তাড়া করার ক্ষেত্রে এগিয়ে বিরাট', মন্তব্য ডিভিলিয়ার্সের

২৬ বছরের ঝিঙ্গানের সিনিয়র কেরিয়ার শুরু বাইচুং ভুটিয়া, রেনেডি সিংদের হাত ধরে। কেরিয়ারের শুরুতে সিকিম ইউনাইটেডে বাইচুং-রেনেডির সান্নিধ্য তাঁকে আগামীদিনে জাতীয় দলে প্রতিষ্ঠা পেতে প্রভূত সাহায্য করেছে বলা যায়। বর্তমানে অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর পর জাতীয় দলে দ্বিতীয় নির্ভরযোগ্য ফুটবলার হয়তো ঝিঙ্গানই।২০১৫ বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে ব্লু জার্সিতে অভিষেক হওয়া ঝিঙ্গান আইএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি কেরালা ব্লাস্টার্সের জার্সি গায়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা ফুটবলার। সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার ঝিঙ্গানের খেলায় জাতীয় দলের প্রাক্তন কোচ স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন এতোটাই মুগ্ধ ছিলেন যে ছেত্রীর অনুপস্থিতিতে জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব ব্রিটিশ কোচ তুলে দিয়েছিলেন ঝিঙ্গানের হাতে। বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে জাতীয় দলে অধিনায়কত্বের চ্যালেঞ্জ সামলেছেন ঝিঙ্গান।

আরও পড়ুনঃভারতের মাটিতে আয়োজিত অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের নয়া সূচি ঘোষণা করল ফিফা

আরও পড়ুনঃক্রিকেটে অব্যাহত করোনার থাবা,স্থগিত মহিলা বিশ্বকাপ ও অনুর্ধ্ব ১৯ পুরুষ বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার

অন্যদিকে দেশের প্রথম মহিলা ফুটবলার হিসেবে ইতিহাস গড়েছিলেন মাসখানেক আগেই। দেশের প্রথম মহিলা ফুটবলার হিসেবে বিদেশের পেশাদার ফুটবল লিগে ইতিমধ্যেই নথিভুক্ত হয়েছে তাঁর নাম। ১৮ মাসের চুক্তিতে স্কটল্যান্ডের জনপ্রিয় ক্লাব রেঞ্জার্স এফসি’তে খেলার সুযোগ পেয়েছেন বালা। মহামারী করোনার জেরে লিগ স্থগিত হওয়ার আগে ইউরোপের প্রথম সারির লিগে বেশ কিছু ম্যাচের অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করে নিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এশিয়ার প্রথম সারির একজন মহিলা ফুটবলার হিসেবে সম্প্রতি এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের ‘ব্রেক দ্য চেন’ সচেতনতামূলক প্রচারেরও অংশ হয়েছিলেন বালা। সন্দেশ ঝিঙ্গান ও বালা দেবীর মনোনয়নকে একেবারে সঠিক বলে মনে করছে ভারতীয় ফুটবল  মহল। দেশের জার্সি গায়ে যে অভূতপূর্ব পারফরমেন্স করেছেন এই দুই ফুটবলার তার যোগ্য সম্মান অর্জুন পুরষ্কার। সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের এই সিদ্ধান্ত খুশি সন্দেশ ঝিঙ্গান ও বালা দেবী। এই সম্মান আগামী দিনে তাদের আরও ভাল কিছু করার অনুপ্রেরণা দেবে বলেই মনে করছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা। অর্জুন পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হওয়ার পর থেকেই শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন দুই ভারতীয় ফুটবল তারকা।