করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে দীর্ঘদিনের জন্য বন্ধ ছিল ফুটবল। ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলির মধ্যে জার্মানিও তার ব্যতিক্রম ছিল না। কবে ফিরতে পারে ফুটবল এই ব্যাপারে সঠিক ধারণা এক মাস আগেও কারোর ছিল না। যার জেরে বাধ্য হয়ে ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডস-এর মতো দেশগুলি নিজের নিজের ফুটবল লিগগুলি এই মরশুমের জন্য বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে। ফ্রান্সের লিগে অনেক ব্যবধানে এগিয়ে থাকা 'প্যারিস সেন্ট জার্মেইন'-কে বিজয়ী ঘোষণা করেছিল 'লিগ ওয়ান' কর্তৃপক্ষ। এরিডিভাইসে-তে অবশ্য কোন দলকেই বিজয়ী ঘোষনা করা হয়নি। 

আরও পড়ুনঃওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বানানোয় আপত্তি মুম্বইবাসীর

আরও পড়ুনঃএবার প্রভু দেবার জনপ্রিয় মুকাবিলা গানে কোমড় দোলালেন সস্ত্রীক ওয়ার্নার

এর মধ্যেই বেশ কিছুদিন আগে খেলোয়াড়দের ট্রেনিংয়ে ফিরতে ক্লাবদেরকে অনুরোধ করেছিলেন বুন্দেশলিগা কর্তৃপক্ষ। প্রথমে ব্যাক্তিগত ভাবে এবং তারপরে একসাথে অনুশীলনে ফিরেছিলেন বিভিন্ন ক্লাবের ফুটবলাররা। এরপর কিছুদিন আগেই ঘোষিত হয়েছিল যে ১৬ ই মে থেকে ফিরছে ফুটবল। এখনও ৯ টি পর্বের খেলা বাকি ছিল বুন্দেশলিগায়। প্রথমদিন বড় দলের মধ্যে খেলা ছিল বুরুশিয়া ডর্টমুন্ডের। দ্বিতীয় দিন মাঠে নেমেছিল বায়ার্ন মিউনিখ। ইউনিয়ন বার্লিনের বিরুদ্ধে চমকপ্রদ ফুটবল না খেললেও দাপট দেখিয়ে ২-০ গোলে ম্যাচ জিতে নেয় তারা। 

আরও পড়ুনঃলকডাউনের মধ্যেই কি দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে আইপিএল

ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন রবার্ট লেওনডস্কি। ৪০ মিনিটে ইউনিয়ন বার্লিনের ডিফেন্ডার পেনাল্টি বক্সের ভেতরে লিওন গরতেজস্কাকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় বায়ার্ন। গোল করতে ভুল করেননি পোলিশ স্ট্রাইকার। যদিও ওই গোল বাদ দিলে ম্যাচে তেমন প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ লেওনডস্কি। অনেক প্রতিক্ষার পর ৮১ মিনিটে দ্বিতীয় গোল আসে বায়ার্নের। কিমিচের সুন্দর করে বাড়ানো কর্নার থেকে দুরন্ত হেডে ব্যাবধান বাড়ান বেঞ্জামিন পাভার্ড। এই জয়ের ফলে লিগ টেবিলের ১ নম্বর জায়গায় নিজেদের অবস্থান আরও মজবুত করলো বায়ার্ন।