গত ৩০ এপ্রিল  ভারতীয় ক্রীড়া জগতের আকাশে আরও এক নক্ষত্র পতন হয়। পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যুর এক মাসের কিছু বেশি সময়ের মধ্যেই প্রয়াত হন দেশের আরেক কিংবদন্তী ফুটবালর চুনী গোস্বামী। ৮২ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্য়াগ করেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই মৃত্যু হয় প্রবাদ প্রতীম ফুটবলারের। ভারতীয় ফুটবলকে বিশ্বের দরবারে নিয়ে গিয়েছিলেন চুনী গোস্বামী।  ১৯৫৪ থেকে ৬৭ সাল পর্যন্ত টানা মোহনবাগান ক্লাবের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন চুনী গোস্বামী। এছড়া দেশের হয়ে ৫০টি  আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ১৯৬২ সালে চুনী গোস্বামীর অধিনায়কত্বেই এশিয়ান গেমসে সোনা জিতেছিল ভারতীয় ফুটবল দল।  ঘরোয়া লিগে মোহনবাগানের হয়ে সবচেয়ে সফল তিনি। ১৯৬৩ সালে অর্জুন পুরস্কার, ১৯৮৩ সালে পদ্মশ্রী এবং ২০০৫ সালে মোহনবাগান রত্ন পুরস্কারে সম্মানিত হন চুনী গোস্বামী।  কিন্তু এমন একটা সময় তিনি সকলকে ছেড়ে গেলেন যে কেউ তাকে শেষ শ্রদ্ধা টুকু জানাতে পারেননি। শুধু তাই নয় আয়োজন করা যাচ্ছে না তাঁর শোকসভাও।

আরও পড়ুনঃচূড়ান্ত দিন ঠিক না হলেও জুনেই ফিরছে স্প্যানিশ লা লিগা,জানালেন মুখপাত্র

চুনী গোস্বামীর প্রয়াণের দিন সোশ্যাল মিডিয়াতেই শোক জ্ঞাপন করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে ক্রীড়া জগৎ ও বিনোদন জগতের তারকারা।  শুধু ফুটবলই নয়, ক্রিকেটেও সমান পারদর্শী ছিলেন চুনী গোস্বামী। একটা সময় বাংলার হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটও খেলেছেন। বাংলার রনজি দলকে নেতৃত্বও দেন। ১৯৭১-৭২ মরসুমে দলকে তুলেছিলেন ফাইনালে। এমন বহুমুখী প্রতিভাসম্পন্ন বাঙালিকে সিএবি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবে। আয়োজন করা হয়েছে শোকসভার। তবে একটু অন্যরকম ভাবে, ভার্চুয়ালি। লকডাউনের জেরে ইডেনে ক্রীড়া কিংবদন্তীর স্মরণসভা আয়োজন করা এইমুহুর্তে সম্ভব নয়। তাই ডিজিটাল মাধ্যমে স্মৃতিচারণ করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করবেন ক্রীড়াপ্রেমী মানুষজন। এমনই উদ্যোগ নিয়েছে  রাজ্যের ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা। সিএবি’র অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে মেল আইডি homage.cab@gmail.com দেওয়া হয়েছে। ওই মেল আইডিতে আগামী ৯মে বিকেল পর্যন্ত লেখা পাঠানো যাবে। ১০মে চুনী গোস্বামীর শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের দিনই সিএবির সোশ্যাল মিডিয়ায় সমস্ত লেখা আপলোড করা হবে বলে জানা গিয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সিএবি’র তরফে ফের স্মরণসভার আয়োজন করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ১৬ মে থেকে শুরু বুন্দেসলিগা,প্লেয়ারদের সর্বোচ্চ পর্যায়ের সুরক্ষা দিতে প্রস্তুত বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

আরও পড়ুনঃবুন্দেসলিগায় ফুল ফুটিয়েছেন এই বাঙালি কোচ,জানুন রবিন দত্তের কাহিনী

এর আগে গত ৫ এপ্রিল অনলাইনে চুনী গোস্বামীকে নিয়ে আরও একটি স্মরণসভার আয়োজন করা হয়েছিল। উদ্যোক্তা ছিলেন দিল্লি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সাজি প্রভাকরণ। আলোচনায় ছিলেন প্রাক্তন ফুটবলার সুভাষ ভৌমিক, গডফ্রে পেরেরা, ব্রক্ষ্মানন্দ, গৌতম ঘোষ। ছিলেন মোহনবাগান অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত এবং তিন সাংবাদিকও।  সেই স্মরণ শুধু চুনী গোস্বামী নয় স্মৃতিচারন করা হয় পিকে বন্দ্যোপাোধ্যায়কে নিয়েও। লকডাউন উঠলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চুনী গোস্বামী ও পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়কে শ্রদ্ধা জানাতে একাধিক শোকসভা পরিকল্পনাও রয়েছে।