কলকাতা লিগের মিনি ডার্বিতে দশ জনের মহমেডানকে হারিয়ে লিগ খেতাবের আরও কাছে পৌছে গেল ইস্টবেঙ্গল। শেষ ম্যাচে কাস্টমসের বিরুদ্ধে জয় এবং একটি ম্যাচে পিয়ারলেসের হার ইস্টবেঙ্গল তাঁবুতে লিগ খেতাব এনে দিতে পারে। মিনি ডার্বিতে যখন খেলা শুরু হল তখন দুই দলের সামনেই লিগ জয়ের হাতছানি ছিল। মোহনবাগান ও পিয়ারলেসকে হারানোর আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নেমেছিল দীপেন্দু বিশ্বাসের দল। খেলার শুরুটা তাই ছিল বেশ টানটান। তবে ১২ মিনিটেই পিন্টু মাহাতো এগিয়ে দিলেন ইস্টবেঙ্গলকে। কিন্তু সেই লিগ বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি। ২৪ মিনিটে করিমের ফ্রিকিক ক্লিয়ার করেত গিয়ে নিজের গোলেই ঢুকিয়ে দিলেন বোরহা। ম্যাচ ১-১। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই চোটের জন্য মাঠ ছাড়লেন বোরহা। ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে বারবার লাল হলুদ রক্ষণে হানা দিচ্ছেল মহমেডান। পাল্টাও দিচ্ছিল ইস্টবেঙ্গলও। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে লাল হলুদের গোলমুখী বল হাত দিয়ে আটকাতে গিয়ে লাল কার্ড দেখলেন মহমেডানের সৈফুল। পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দিলেন কোলাডো। 

আরও পড়ুন - মোদীর পরেই স্থান ধোনির, তাই বলছে সমীক্ষার রিপোর্ট

দ্বিতীয়ার্ধে দশ জনের মহমেডানকে পেয়ে ম্যাচে বেশ দাপটের সঙ্গেই খেলতে শুরু ইস্টবেঙ্গল। ৫৩ মিনিটে পিন্টুকে তুলে নিয়ে মার্কোস মার্টিনকে মাঠে নামালেন আলেহান্দ্রো। মাঠে নামার ছয় মিনিটের মধ্যেই দলের তৃতীয় গোলটি করলেন লাল হলুদের স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। এরপর কোলাডোকে তুলে নেন আলেহান্দ্রো, কিন্তু মহমেডানের টিডি দীপেন্দু নিজের শেষ বাজি আর্থার কোয়েসিকে মাঠা নামান। ৮২ মিনিটে মহমেডানের হয়ে দ্বিতীয় গোল করে ম্যাচ জমিয়ে দেন আর্থার কোয়েসি। দশ জনের সাদা কোলা ব্রিগেডকে আটকাতে তখন হিমশিম খেল ইস্টবেঙ্গল। কিন্ত খুব কাছে পৌছেও গোলের মুখ আর খুলতে পারেনি মহমেডান। ইস্টবেঙ্গলের কাছে ৩-২ গোলে হেরে লিগ পাওয়ার আশা শেষ মহমেডানের।

আরও পড়ুন - এবার বিশ্ব ক্রিকেট সোশ্যাল মিডিয়ায়, আইসিসির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধল ফেসবুক

শুক্রবার রেনবোর বিরুদ্ধে নামবে পিয়ারলেস। রেনবোর কোচ সৌমিক লাল হলুদের ঘরের ছেলে হিসেবে পরিচিত। তিনি কি পারবেন পিয়ারলেসকে হারিয়ে ইস্টবেঙ্গলের লিগ জয়ের রাস্তাটা পরিস্কার করে দিতে? আর সেটা না হলে ১৯৫৮ সালের পর কোনও ছোট দলের হাতে উঠতেই পারে কলকাতা লিগের খেতাব। কারণ গোল পার্থক্যে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন ক্রোমারা। তাই বৃহস্পতিবার মিনি ডার্বি জিতলেও শুক্রবারের পিয়ারলেস ম্যাচের দিকে চোখ লাল হলুদ জনতার। 

আরও পড়ুন - যে দেশে মহিলাদের মাঠে ঢুকতে দেওয়া হয় না, সেই দেশে ইউরোপের দল খেলতে যাবে না, সিদ্ধান্ত উয়েফার বৈঠকে