করোনা ভাইরাস মহামারীর জেরে এবছর নববর্ষে ময়দানে হয়নি বার পুজো। মানুষের স্বাস্থ্যের কথা ভেবে ইষ্টবেঙ্গল থেকে মোহনবাগান প্রথা ভেঙেছে ময়দানের দুই বড় ক্লাব। বারপুজো না হলেও পরের মরসুমের জন্য দল গোছাতে শুরু করে দিয়েছে সব দল। বিশেষ করে আগামি মরসুম প্রেস্টিজ ফাইট হতে চলেছে ইষ্টবেঙ্গলের কাছে। কারণ গত মরসুমে ক্লাবের শতবর্ষে গোটা মরসুম একেবারে সাদামাট ফুটবল খেলেছে লাল-হলুদ। কোনও ট্রফি তো আসেইনি উপরন্তু চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগানের ঘরে ঢুকেছে আইলিগ। ফলে আগামী মরসুমে দল গঠনে কোনও খামতি রাখতে চাইছেন ইষ্টবেঙ্গল কর্তারা। ট্রফি জয়ের লক্ষ্যে গুছিয়ে দল করতে ঝাঁপিয়েছে লাল-হলুদ শিবির।
আরও পড়ুনঃকরোনায় জারি মৃত্যু মিছিল,জরুরি পরিষেবার তকমা নিয়ে মার্কিন মুলুকে শুরু ডব্লু.ডব্লু.ই
আরও পড়ুনঃবাতিল হতে চলেছে আইলিগের বাকি ২৮টি ম্যাচ, খবর ফেডারেশন সূত্রে
ভারতের জাতীয় দলেরল স্ট্রাইকার  বলবন্ত সিং -এর পর এবার ইস্টবেঙ্গলের তরুপের তাস বিক্রমজিৎ সিংহ। লাল-হলুদে প্রায় চূড়ান্ত বিক্রমজিৎ। ২০১৪-’১৫ মরসুমের আই লিগ জয়ী মোহনবাগান দলের সদস্য ছিলেন এই মিডফিল্ডার। তার পরেও সবুজ-মেরুন জার্সিতে খেলেছেন তিনি। জিকোর গোয়া, চেন্নাইয়িন, দিল্লি ডায়নামোজ, ওডিশার মতো ক্লাবের হয়ে আইএসএল খেলার পরে এ বার লাল-হলুদ জার্সি উঠতে চলেছে তাঁর পিঠে। ক্লাব সূত্রের খবর, বিক্রমজিতের সঙ্গে কথাবার্তা প্রায় পাকা হয়ে গিয়েছে ইস্টবেঙ্গলের। পঞ্জাবতনয়ের পরবর্তী গন্তব্য লেসলি ক্লডিয়াস সরণির ক্লাব। এছাড়া মোহনবাগানের আইলিগ জয়ী দলের সদস্য চুলোভাকে ফিরিয়ে আনল লাল-হলুদ। গত মরশুমে ইস্টবেঙ্গল ছেড়ে মোহনবাগানে যোগ দেন মিজোরামের এই সাইড ব্যাক। কিন্তু ভিকুনার প্রথম একাদশে সেভাবে সুযোগ পাননি। তাই নতুন মরশুমে পুরনো দলে ফিরে এলেন চুলোভা। ইতিমধ্যেই তারকা স্ট্রাইকার বলবন্ত সিং-কে দু'বছরের চুক্তিতে সই করিয়েছে লাল হলুদ। এবার ইস্টবেঙ্গলের নজরে পাঞ্জাবি ডিফেন্ডার গুরতেজ সিং। গত মরসুমে হায়দ্রাবাদ এফসির হয়ে ১৩টা ম্যাচ খেলেছিলেন ৩০ বছর বয়সী এই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার। চার্চিল ব্রাদার্স, বেঙ্গালুরু এফসি, এফসি পুনে সিটির মতো দলে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে গুরতেজের।  সব ঠিকঠাক চললে বলবন্তের পর দ্বিতীয় পাঞ্জাবি ফুটবলার হিসেবে ইস্টবেঙ্গল জার্সি গায়ে চাপাতে চলেছেন গুরতেজ। মোহনবাগানের আইলিগ জয়ী দলের আর এক সদস্য ভিপি সুহেরকেও দলে পেতে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল। কেরলের স্ট্রাইকারের সঙ্গে কথা অনেক দূর এগিয়েছে লাল-হলুদ কর্তাদের। এটিকে-র ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার শেহনাজ সিংয়ের সঙ্গেও কথা এগিয়েছে লাল হলুদ কর্তাদের। শেহনাজকে পেয়ে গেলে মাঝ মাঠ আরও শক্তিশালী হবে ইস্টবেঙ্গলের। ফলে পরের বছর আইলিগ না আইসিএল খেলবে ইষ্টবঙ্গল তা এখনও চূড়ান্ত না হলেও, ট্রফি জয়ই যে একমাত্র লক্ষ্য ইষ্টবেঙ্গল কর্মকর্তাদের। একিসঙ্গে রয়েছে সমর্থকদের পাড়ার প্রমাণ চাপও। তাই একশো শতাংশ পারফেক্ট দল গড়তে মরিয়া ইষ্টবেঙ্গল।
আরও পড়ুনঃভারতের কোনও সাহায্যের দরকার নেই পাকিস্তানের, জানিয়ে দিলেন পিসিবি চেয়ারম্যান