এক মাসের বেতন না দিয়েই ইষ্টবেঙ্গল প্লেয়ারদের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ করেছিল কোয়েস। ক্লাবের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে লাল-হলুদ স্পনসরদের। তবে ক্লাবের মালিকানা নিয়ে সমস্যা হোক আর প্লেয়ারদের বেতন নিয়ে দড়ি টানাটানি কোয়েসের সঙ্গে দ্বন্দ্ব লেগেই রয়েছেন ইষ্টবেঙ্গল ক্লাব থেকে প্লেয়ারদের। যদিও এবার প্লেয়ারদের সঙ্গেই কোয়েসের বিবাদ বেশি। করোনা মহামারির জেরে অবশ্যিক ভিত্তিতে ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি ছিন্ন করেছিল কোয়েস। ইস্টবেঙ্গলের হয়ে ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি করেছিল কোয়েসই। সুতরাং খেলোয়াড়দের সরাসরি পারিশ্রমিক দেওয়ার কথা তাদেরই। অথচ হঠাৎই কোয়েসের তরফে ফুটবলারদের জানিয়ে দেওয়া হয়, মে মাসের বেতন দেওয়া হবে না তাঁদের। তারপর থেকেই বিবাদের শুরু।যদিও এপ্রিল মাসর বেতনও এখনও হাতে পাননি লালহলুদ প্লেয়াররা। ইষ্টবেঙ্গলের যেসব বিদেশী প্লেয়াররা দেশে ফিরে গিয়েছেন,তারাও এর আগেই হুঁশিয়ারী দিয়ে রেখেছেন বেতন না পেলে প্রয়োজনে ফিফার দ্বারস্থ হবেন তারা। এবার বেতন ইস্যু নিয়ে কোয়েসের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে ফেডারেশনের দ্বারস্থ হতে চলেছে লাল-হলুদ প্লেয়াররা।

আরও পড়ুনঃবিরাট কোহলিকে ছোঁয়াই লক্ষ্য বাবর আজমের,বললেন শোয়েব আখতার

আরও পড়ুনঃকরোনা আবহে ক্রিকেটে একাধিক নয়া নিয়ম জারি করল আইসিসি,জেনে নিন আপনিও

এপ্রিল মাসেও যে ইষ্টবেঙ্গল প্লেয়াররা বেতন পাননি তা জানা য়ায় বেশ কিছু ইস্টবেঙ্গল ফুটবলার প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন মারফৎ দু'মাসের বকেয়া বেতন চেয়ে কোয়েসকে পাঠানো চিঠির মাধ্যমে। অভিষেক আম্বেকর, পিন্টু মাহাতার মতো বেশ কিছু ভারতীয় ফুটবলারের সঙ্গে এক বা একাধিক বছরের চুক্তি বাকি রয়েছে ইস্টবেঙ্গলের। বিদেশী ফুটবলারদের মধ্যে জেমি স্যান্টোসের সঙ্গেও দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি ছিল ক্লাবের। তাঁরাই এপ্রিল ও মে মাসের বেতন দাবি করে চিঠি পাঠিয়েছেন কোয়েসকে। ফুটবল প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, এক বা একাধিক বছরের চুক্তি বাকি থাকা ভারতীয় ফুটবলাররা তাদের মাধ্যমে কোয়েসকে নোটিশ পাঠিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী বেতন না পাওয়ায় ফুটবলাররা চুক্তি ছিন্ন করে অন্য ক্লাবে যোগ দিতে পারেন এবং ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারেন। এও শোনা যাচ্ছে যে, স্প্যানিশ ফুটবলার্স অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে কোয়েসকে চিঠি পাঠিয়েছেন স্যান্টোসও।কোয়েস চিঠির জবাবে বাধ্যতামূলক শর্তের কথা উল্লেখ করে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছে। প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের তরফে জানানো হয়েছ, কোয়েস জবাব দিয়ে দেওয়ায় ফুটবলারর ফেডারেশনের প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির দ্বারস্থ হতে পারেন এখনই। তবে তারা ফুটবলারদের ১৪ দিন অপেক্ষা করার পরমার্শ দিয়েছে। ফলে ইষ্টবেঙ্গল ক্লাবের সঙ্গে কোয়েসের দ্বন্দ্ব, অপরদিকে গত মরসুমের পাওনা নিয়ে লাল-হলুদ প্পেলায়রদের সঙ্গে কোয়েসের দ্বন্দ্বের জল কত দূর গড়ায়, এখন সেদিকেই নজর ফুটবল বিশেষজ্ঞদের।

আরও পড়ুনঃগতির দুনিয়ায় ঝড় তোলা ছেড়ে নামী পর্ণ স্টার,জানুন রেনে গার্সির কাহিনি