এবারের ফিফার বার্ষিক পুরস্কার নিয়ে নানান মহলে বিতর্ক। অনেকের মতেই বর্ষসেরা পুরুষ ফুটবলার হওয়ার কথা ছিল না মেসির। তাঁকে পাইয়ে দেওয়া হয়েছে এই পুরস্কার। পাশাপাশি গোটা পুরস্কারের ভোটদান প্রক্রিয়া নিয়েও উঠেছে বিস্তর অনিয়মের অভিযোগ। শনিবার এক বিবৃতি জারি করে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা। ফিফার বার্ষিক পুরস্কারের ভোট দান প্রক্রিয়ার গায়ে যাতে কাদা না লাগে সেই চেষ্টাই করল ফিফা। একই সঙ্গে তারা এটাও জানাল, যদি কোনও অনিয়ম হয়ে থাকে,  তাহলে তার তদন্ত করে অনিয়মের সঙ্গে যুক্ত থাকা  ফুটবল ফেডারেশেন গুলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও কথা বলে হয়েছে ফিফার তরফে। 

আরও পড়ুন - শনিবার মধ্যরাতে মাদ্রিদ ডার্বি,চাপে দুই দলের কোচই

নিজেদের বিবৃতিতে ফিফা জানিয়েছে, বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান প্রক্রিয়া ও তার ভোট প্রক্রিয়া স্বচ্ছ বলেই দাবি করেছে। ফিফা জানিয়েছে, ফিফার পুরস্কার দেওয়া হয় সমস্ত দেশের আধিনাক ও কোচেদের ভোটের ভিত্তিতে। সেই ভোট যেমন অনলাইনের মাধ্যমে হয়, তেমনই সব ভোট দাতাদের বলা হয়ে ফিফা থেকে পাঠানো ফর্ম পোস্টের মধ্যমে ফিফার সদর দপ্তরে পাঠিয়ে দিতে। মিলিয়ে দেখা হয় দুটি ভোটই। তারপরই ঘোষণা হয় সেরা তালিকা। তাই ভোট প্রক্রিয়ায় কোনও সমস্যা নেই। পাশাপাশি এই ভোট প্রক্রিয়া একটি স্বাধীন সংস্থার মাধ্যমে পর্যোবেক্ষণ করা হয়। 

আরও পড়ুন - দুটি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হল রিয়াল কাশ্মীর ফুটবল দল নিয়ে তৈরি তথ্যচিত্র

ফিফা পুরস্কারে অনিয়মের অভিযোগ খারিজ করার পাশাপাশি আরও একটি বিষয়ে এদিন স্পষ্ট করল ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা। কেন ইজিপ্টের ভোট বাতিল করা হয়েছে সেটাও জানাল ফুটবলে নিয়ামক সংস্থা। ফিফা জানিয়েছে ভোট দানের ফর্মে ইজিপ্টের ভোটদাতারা সই সংক্রান্ত কিছু ভুল করেছেন। সেই ভুলের জন্যই মিশরের ভোট বাতিল করা হয়। 

আরও পড়ুন - লতা মঙ্গেশকরের জন্মদিন, মাস্টার ব্লাস্টার সচিনের আবেগঘন শুভেচ্ছা বার্তা