এরকম অদ্ভুত ঘটনা খুব একটা সচরাচর ঘটতে দেখা যায় না। ২৩ বছর বয়সী ঘানার ফুটবলার জুয়ান মুলার ৭৪ দিন ধরে আটকে ছিলেন মুম্বাইয়ের বিমানবন্দরের লাউঞ্জে। অবশেষে বিমানবন্দরের লাউঞ্জ থেকে তিনি ছাড়া পেয়ে ঠাঁই পেলেন একটি হোটেলে। ভারতীয় যুবসেনার তৎপরতায় বিমানবন্দরে দিন কাটানোর সময়ের অবসান ঘটলো তার। যুব সেনার সদস্য রাহুল কানাল-এর সাহায্যে বান্দ্রার একটি হোটেলে ঠাঁই পেলেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃবর্ণবৈষম্য নিয়ে সরব ইরফান পাঠান,বললেন ঘরোয়া ক্রিকেটেও চলে গায়ের রং নিয়ে কটাক্ষ

একটি সাক্ষাৎকারে বান্দ্রার সেই হোটেল থেকে মুলার জানিয়েছেন তার সেই ৭৪ দিনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে। তিনি আরও জানিয়েছেন ঘানা থেকে রেসকিউ ফ্লাইট এসে যাতে তাকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারে সেই ব্যাপারে ঘানার সরকারের সঙ্গে যোগাযোগও করা হয়েছে। এই ব্যাপারেও তাকে সাহায্য করছেন যুব সেনার সদস্য রাহুল কানাল। তাকে এইজন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুলার। এই সময় বেঁচে থাকতে তাকেও যে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে সেটাও জানিয়েছেন মুলার। 

 

 

আরও পড়ুনঃ'সৌরভকে হুমকি সচিনের,দিয়েছিলেন কেরিয়ার শেষ করে দেওয়ার হুঁশিয়ারী'

আরও পড়ুনঃসচিনকে আউট করে লাগাতার খুনের হুমকি পেয়েছিলেন এই বোলার

গতবছরের নভেম্বর মাস থেকে ভারতেই ছিলেন মুলার। কেরালার ওআরপিসি ফুটবল ক্লাবের হয়ে খেলছিলেন তিনি। লকডাউন শুরু হওয়ার আগেই মুম্বাইতে পৌঁছেছিলেন তিনি। তার বিমান ছাড়ার কথা ছিল মার্চ মাসের ৩০ তারিখ। সেই সময়টুকুর জন্য তিনি একটি আস্তানা খুঁজছিলেন। তখন এক পুলিশ তাকে পরামর্শ দেয় এয়ারপোর্টে যাওয়ার। তারপর আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আর দেশে ফিরতে পারেননি তিনি। ফলে মুম্বাই এয়ারপোর্টই হয়ে উঠেছিল তার থাকার জায়গা।