আইএসএলের প্রথম মরসুমেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে সকলের নজর কেড়েছিল এটিকে। তারপর দেখতে দেখেত তিনবার আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে এটিকে। আইএসএলের সংক্ষিপ্ত ইতিহাসে অন্যতম সফল দলের তকমাও তাদেরই দখলে। কসকাতা তথা বাংলার নতুন ফুটবল শক্তি হিসেবে নিজেদের তুলে ধরেছিল এটিকে। এটিকে যাত্রা না থামলেও, চলতি বছরে মোহনবাগানের সঙ্গে চুক্তবদ্ধ হয়েছে তিনবারের আইএসএল চ্যানম্পিয়ানরা। ৫ বার দেশের সেরা লিগ জেতা ক্লাবের সঙ্গে গাঁটছড়া বেধে এটিকে মোহনবাগান হিসেবে নতুন নামে আত্মপ্রকাশ করেছে দল। এটিকে মোহনবাগান ভারতীয় ফুটবলে নতুন ইতিহাস লিখবে কিনা তা তো ভবিষ্যৎই বলবে। কিন্তু এটিকের অস্তিত্ব মুছে যেতে বসেছে বাংলা তথা ভারতীয় ফুটবল থেকে।

আরও পড়ুনঃসুপ্রিম কোর্টে ঝুলে রইল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভাগ্য,ধোঁয়াশায় বিসিসিআই

এটিকে বলে আলাদা কোনও দল না থাকায় বাংলার ফুটবল সংস্থা থেকে নিজেদের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করতে চাওয়া হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। অন্যদিকে, ইন্ডিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনে চিঠি দিয়ে মোহনবাগান জানিয়ে দিয়েছে, তাদের নথিভূক্ত করা হোক নতুন নামে। আইএফএ-তে এটিকের রেজিস্ট্রেশন ছিল কলকাতা গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস প্রাইভেট লিমিটেড নামে। মোহনবাগনের রেজিস্ট্রেশন ছিল মোহনবাগান অ্যাথলেটিক ক্লাব হিসেবে। কিছুদিন আগেই এটিকে ও মোহনবাগান গাঁটছড়া বেঁধে এক হয়ে গিয়েছে। তারা মাঠে নামবে এটিকে-মোহনবাগান নামে অভিন্ন দল হিসেবে। এবার রাজ্য সংস্থায় নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিল তারা। হিসাব মতো এটিকে ও মোহনবাগান, আলাদা আলাদা দল হিসেবে কারও অস্বিস্ত নেই। এক্ষেত্রে আইএফকে চিঠি দিয়ে এটিকে নিজেদের অনুমোদন বাতিল করার অনুরোধ জানায়। মোহনবাগান রেজিস্ট্রেশন বাতিল না করে এটিকে-মোহনবাগান হিসেবে নতুন নামে পরিচিত হওয়ার আবেদন করে।

আরও পড়ুনঃ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই ভোলবদল,বিজেপি ছাড়লেন মেহতাব হোসেন, বিপাকে পদ্ম শিবির

আরও পড়ুনঃ২০২০-২১ মরশুমের আইলিগ হতে চলেছে ফুটবলের মক্কা কলকাতায়

যদিও এইসব কিছু নিয়ে ভাবতে নারাজ বর্তমানে এটিকে মোহনবাগান কর্তারা। মরসুমে ভাল দলগড়া ও ভাল ফল করাই লক্ষ্য এটিকে মোহনবাগানের। ইতিমধ্যেই কলকাতা লিগেও যে দল এটিকে মোহনবাগান নামে খেলবে সেই কথাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। মোহনবাগান মাঠকেও ঢেলে সাজানোর কথা বলা হয়েছে এটিকের পক্ষ থেকে। ফলে বর্তমানে নাম নয়, নিজেদের খেলার মাধ্যমেই ভারতীয় ফুটবলে নয়া নজির গড়তে বদ্ধপরিকর এটিকে মোহনবাগান।