ভারতীয় ফুটবলে উঠতি তারকা ছিল আনোয়ার আলি। ভারতীয় দলের হয়ে অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপেও প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন এই ভারতীয় ফুটবলার। তবে তারপরও বেশ ভালো ভাবেই নিজেকে প্রমান করেছেন এই ফুটবলার। কিংস কাপ থেকে শুরু করে ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ সহ আরও বেশ কিছু জায়গায় ভারতের হয়ে সম্ভাব দলেও ছিলেন এই ডিফেন্ডার। তবে আগামী দিনে আর ফুটবল খেলা হবে না আনোয়ারের। আগামী দিনে ফুটবল দ্বৈরথের বাইরেই থাকতে হবে এই ভারতীয় ফুটবলারকে। প্রাক্তন অনূর্ধ্ব ১৭ এই বিশ্বকাপারের হ্রদযন্ত্রে সমস্যা দেখা দিয়েছে। সেই কারণে এবার ফুটবল মাঠ থেকেই সম্ভাবত ছিটকে যেতে হচ্ছে এই ফুটবলারকে। বেশ কয়েকবছর আগে এই একই ভাবে হ্রদযন্ত্রের সমস্যার জন্য ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসের কেরিয়ারও উঠেছিল প্রশ্নের মুখে। এবার সেটার শিকার হলেন আনোয়ার।

আরও পড়ুন, রবিবার শেখ কামাল কাপে মাঠে নামছে মোহনবাগান, তিন পয়েন্টে পাখির চোখ কিভুর

ছোট থেকে ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন ছিল এই ফুটবলারের। আগামী দিনে ফুটবলে বড় তারকা হবেন তিনি। সেই বিষয় নিয়েই স্বপ্ন দেখছিলেন বছর ২১য়ের এই ভারতীয় ফুটবলার। ফিফা বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারের সম্ভাব দলেও ছিলেন তিনি। একই সঙ্গে ভারতীয় কোচ আইগর স্টিমাচের চোখেও ধরা দিয়েছিলেন এই ভারতীয় ফুটবলার। তবে আগামী দিনে ফুটবল খেলা হবে কি না সেই নিয়ে এবার সন্দেহ শুরু হয়ে গেল আনোয়ারের। নানা  সময়ে চোটের কারণে মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছে এই ভারতীয় ফুটবলারকে। তবে এবার হ্রদযন্ত্রের অসুস্থা তাঁর ফুটবল কেরিয়ারে বড় প্রশ্ন তুলে দিল। ফুটবল খাটুনি ও সময় সাপেক্ষ খেলা। একই সঙ্গে ফুটবলে হ্রদযন্ত্র ও ফুসফুসের কাজের প্রভাব সব থেকে বেশি। তবে সেই হ্রদযন্ত্রেই এবার অসুবিধা দেখা দিয়েছে আনোয়ারের। আর সেই সঙ্গে স্বপ্ন ভঙ্গ হচ্ছে এই ভারতীয় ফুটবলারের।

আরও পড়ুন, ভারতীয় বক্সিংয়ে ধুন্ধুমার, জারিনকে পাল্টা দিলেন মেরি কম

ভারতীয় ফুটবলে আইলিগে ইন্ডিয়ার অ্যারোজের হয়েও খেলতে দেখা গিয়েছে এই তরুণ প্রতিভাবান ফুটবলারকে। তারপর ২০১৮ সালে আইএসএলে মুম্বই দলে খেলতে শুরু করেন এই ভারতীয় ফুটবলার। তবে এবার হ্রদযন্ত্রের সমস্যার জন্য ফুটবল কেরিয়ার তাঁর জন্য একটা বড় প্রশ্নচিহ্ণ হয়ে  দাঁড়ালো। ডাক্তারের মতে আগামী দিনে এই হ্রদযন্ত্রের সমস্যার কারণে আর ফুটবল মাঠে পা না দেওয়ারই নির্দেশ দিয়েছেন ডাক্তার। আর সেই ক্ষেত্রে আর আগামী দিনে ফুটবল খেলা হবে কি না এই ফুটবলারের সেই নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে জল্পনা। তবে নিয়মিত ফুটবল আর খেলতে পারবেন না বলেই মত ফুটবল মহলের একাংশের।