এখনও বার্সেলোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির চুক্তি রয়েছে আরও এক মরশুমের। কিন্তু বর্তমানে শোনা যাচ্ছে মেসি ২০২১ সালে তার চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই বার্সা ছাড়তে চান। এই নিয়ে অবশ্য মেসি কোনও বিবৃতি দেননি। কিন্তু যে স্প্যানিশ সাংবাদিক এই আশঙ্কার কথা জানাচ্ছেন, তিনিই প্রথম নেইমারের বার্সা ছাড়ার আশঙ্কার কথা সামনে এনেছিলেন এবং তার ১ মাসের মধ্যে পিএসজি-তে যোগ দিয়েছিলেন নেইমার। বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে ৮-২ গোলে হারের পর এই মুহুর্তে হতাশাগ্রস্ত মেসি । তার মধ্যে এই জল্পনা বর্তমানে চরম অস্বস্তিতে ফেলেছে বার্সেলোনা ভক্তদের। 

আরও পড়ুনঃধোনির দিদির কথা অনেকেই জানেন,কিন্তু দাদার কথা কেনও চেপে যান তিনি

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলির গুঞ্জন অনুসারে বার্সেলোনা যদি মেসির পছন্দের ফুটবলার আনা, বোর্ডের ক্ষমতাবদল এবং পছন্দসই কোচ আনতে না পারে তাহলে ক্লাব ছাড়বেন মেসি। আগে অনেকবার মেসির বার্সা ছাড়ার কথা উঠেছে। তবে ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে মেসিকে এবারের মতো দৃঢ়-প্রতিজ্ঞা আগে কখনও দেখা যায়নি।

আরও পড়ুনঃকেনও সন্ধা ৭টা ২৯ মিনিটে অবসর ঘোষণা ধোনির, পেছনে রয়েছে নাকি এই মহাজাগতিক কারণ

আরও পড়ুনঃধোনির জীবনী নিয়ে তৈরি হয়েছিল সিনেমা,বাস্তব থেকে কতটা 'হটকে' ছিল সেই কাহিনি

এই মুহুর্তে মেসির রিলিজ ক্লজ ৭০০ মিলিয়ন ইউরো। চলতি মরশুমে ফ্রি ট্রান্সফারে মেসির দল ছাড়ার সময়ও শেষ হয়ে গেছে। তবে মেসি বার্সার ওপর চাপ প্রয়োগ করে ক্লাব ছাড়তে পারেন বলেও শোনা যাচ্ছে। সেক্ষেত্রে তাকে নেওয়ার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে থাকবে দুটি ক্লাব। সেগুলি হলো ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার সিটি এবং ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান। সিটি-তে গেলে আবার পুরোনো ম্যানেজার পেপ গুয়ার্দিওয়ালার অধীনে খেলতে পারবেন মেসি। ইন্টারে গেলে ফুটবল ভক্তরা আবার দেখতে পাবে মেসি-রোনাল্ডো দ্বৈরথ। তবে একটা ব্যাপার পরিস্কার। মেসি বার্সেলোনা ছাড়লে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যোগ্যতা অর্জন করতেও লড়াই করতে হবে বার্সেলোনা-কে।