মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মানোর কারণে ধোনির বাবা কখনও চাননি থেলে খেলাধুলো করুক। কিন্তু মা ও দিদি সবসময়ে ধোনির পাশে দাঁড়িয়েছেন। এই গল্প সকলেরই জানা। "এম এস ধোনি, দ্য আনটোল্ড স্টোরি" সিনেমার দৌলতে সকলেই জেনে গিয়েছেন তার দিদির কতটা কাছের মানুষ ছিলেন ধোনি। ধোনির বোন জয়ন্তী গুপ্তর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ভূমিকা চাওলা। এই জয়ন্তী গুপ্ত-কে এখনও মাঝে মাঝেই দেখতে পান ধোনি ভক্তরা। চেন্নাই সুপার কিংসের খেলা থাকলে ভিআইপি গ্যালারিতে প্রায়ই ধোনির স্ত্রী সাক্ষী-র সাথে দেখা যায় তাকে। কিন্তু বাস্তব জীবনে মহেন্দ্র সিং ধোনির যে একজন দাদা আছেন সেই খবর খুব বেশি মানুষ জানেন কি? 

আরও পড়ুনঃধোনির সেরা ১৫ ছবি, যা দেখে আপ্লুত হবেন আপনিও

ধোনির নিজের দাদার ব্যাপারে খুব কম মানুষই জানেন, কারণ ধোনি কে নিয়ে নির্মিত বায়োপিকে পুরোপুরিভাবে তার দাদা নরেন্দ্র সিং ধোনির অস্তিত্বকে অস্বীকার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে একসময় প্রশ্ন করা হলে নরেন্দ্র জানিয়েছিলেন যে এটি পুরোপুরি সিনেমার পরিচালকের সিদ্ধান্ত, তিনি এই নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না। পরে যোগ করেছিলেন যে হয়তো পরিচালকের মনে হয়েছে যে মাহির জীবনে তার দাদার তেমন কোনও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেই। তাই তার চরিত্রটিকে সিনেমায় সম্পূর্ণ অস্বীকার করা হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃধোনির জীবনী নিয়ে তৈরি হয়েছিল সিনেমা,বাস্তব থেকে কতটা 'হটকে' ছিল সেই কাহিনি

আরও পড়ুনঃঘরোয়া থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, জেনে নিন ২২ গজে ধোনির অজানা কিছু রেকর্ড

কানাঘুষো শোনা যায় কোনও একটি বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে নরেন্দ্রর সাথে পুরোপুরি সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয় মহেন্দ্র সিং ধোনির পরিবার। অনেকে মনে করেন এই কারণেই হয়তো তাকে সিনেমার পর্দায় জায়গা দেওয়া হয়নি। আবার অনেকের মতে কারণটি সম্পূর্ণ অন্য। নিজের স্ত্রী এবং দুই সন্তান নিয়ে আলাদা থাকা নরেন্দ্র এলাকায় একজন পরিচিত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। ২০১৩ সাল থেকে সমাজবাদী পার্টির সাথে যুক্ত রয়েছেন তিনি। তারও আগে বিজেপির সক্রিয় সদস্য ছিলেন তিনি। অনেকের মতে এই দলবদলই তার চরিত্রের সিনেমায় অনুপস্থিত থাকার কারণ এবং এর পেছনে হাত রয়েছে অনেক উপরমহলের। তবে একটি কথা পরিস্কার। নিজের দিদির সাথে যেমন সম্পর্ক ধোনির, নিজের দাদার সাথে সম্পর্ক হয়তো সম্পূর্ণ বিপরীত.