বাঘ যখন আহত হয় তখন তারা আরও ভয়ংকর। প্রবাদটি যে কতখানি সত্যি তা হারে হারে টের পেল লিভারপুল। বৃহস্পতিবার রাতে ম্যানচেস্টার সিটির ঘরের মাঠে খেলতে নেমেছিল লিভারপুল। লিগের ফয়সলা এই ম্যাচের আগেই হয়ে গিয়েছে। চেলসির কাছে ম্যান সিটির হারের পরই লিভারপুল জিতে গেছে লিগ। তাই আজকের ম্যাচে নামার সময় জুর্গেন ক্লপের লিভারপুলকে গার্ড অফ হনার দেয় পেপ গুয়ার্দিওয়ালার ম্যান সিটি। লিগ জয় নিশ্চিত হওয়ার পর এটা ছিল লিভারপুলের প্রথম ম্যাচ। যদিও মাঠের খেলায় লিগ চ্যাম্পিয়নদের যাবতীয় সম্মান ধুলোয় মিটিয়ে দেন কেভিন দি ব্রুইন-রা। 

আরও পড়ুনঃপদত্যাগের পরই শশাঙ্ক মনোহরকে বেনজিরভাবে আক্রমণ করলেন এন শ্রীনিবাসন

কেভিন দি ব্রুইনের পেনাল্টি, রাহিম স্টার্লিংয়ের অসাধারণ ফিনিশ এবং তরুণ প্রতিভা ফিল ফডেনের গোলে প্রথমার্ধ-তেই তিন গোলে এগিয়ে যায় সিটি। ম্যাচের দ্বিতীয় ভাগে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়াতে ডিফেন্ডার জো গোমেজ-কে তুলে আলেক্স অক্সলেড চেম্বারলিন-কে নামান জুর্গেন ক্লপ। কিন্তু হাস্যকর ভাবে নিজের দলের বিরুদ্ধে জালে বল জড়িয়ে রেডস-দের লজ্জা আরও বাড়ান এই ফরোয়ার্ড। আরও একটি গোল ম্যাচের অন্তিম লগ্নে করে ফেলেছিল সিটি। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারির সিদ্ধান্তে সেই গোল বাতিল হয়। নয়তো লজ্জা আরও বাড়ত বর্তমান লিগ বিজয়ীদের। 

আরও পড়ুনঃবিদেশের মাটিতে হতে পারে আইপিএল,ইঙ্গিত দিলেন এক বোর্ড কর্তা

আরও পড়ুনঃকরোনা মুক্ত নোভাক জোকোভিচ, স্বস্তি টেনিস বিশ্বে

এই হারের পরেও সিটির চেয়ে ২০ পয়েন্ট এগিয়ে রইলো লিভারপুল। আর আজ ম্যাচের শুরুতেও মন্দ খেলছিলেন না জুর্গেনের ছেলেরা। ম্যাচের ২০ মিনিটে লিভারপুলের ইজিপিসিয়ান তারকা সালাহ-র শট পোস্টে লেগে ফেরে। তারপর থেকে ম্যাচের দখল পুরোপুরি নিয়ে নেয় সিটি। ২৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে দি ব্রুইন সিটি-কে এগিয়ে দেওয়ার পর থেকে আর পেছন ফিরে দেখতে হয়নি তাদের। এই জয়ের ফলে আপাতত তৃতীয় স্থানে থাকা লেস্টারের চেয়ে ১১ পয়েন্ট এগিয়ে রইলো পেপ গুয়ার্দিওয়ালার সিটি।