মেসি চইলে চলতি মরসুমের শেষে সে বার্সেলোনা ছাড়তেই পারে। শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে এমনই উক্তি করলেন বার্সেলোনার সভাপতি বার্তেমিউ। ২০১৭ সালেই মেসি চার বছরের নতুন চুক্তি করেছিল কাতালান ক্লাবের সঙ্গে। সেই চুক্তি অনুযায়ী ২০২০-২১ মরসুম পর্যন্ত বার্সেলোনায় খেলতে হবে মেসিকে। তাহলে চলতি বছরের শেষে মেসিকে  কেন ক্লাব ছাড়তে হবে? বার্সেলোনা সভাপতি বলেন, ‘কার্লোস পুয়োল, জাভি হার্নান্ডেজ, ইনিয়েস্তাদেরও এক বছরের চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই ক্লাব ছাড়ার অনুমতি দিয়েছিল ক্লাব। কারণ এই সুবিধেটা তাঁদের প্রাপ্য। ’

কিন্তু কেন এমন কথা উঠে আসছে? অনেকেই ভাবছেন নেইমারকে বার্সেলোনায় না নিয়ে আসায় ক্লাবের ওপর নাকি কিছুটা হলেও ক্ষুব্ধ মেসি। ফুটবল যুবরাজ বারবার নেইমারকে দলে চাইছিলেন। কিন্তু ক্লাব নেইমারের আগে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে আন্তোয়ান গ্রিজম্যানকে সই করায়। আর এই চুক্তির ফলে নেইমারকে পিএসজি থেকে নিয়ে আসার মত ট্রান্সফার মানি বার্সেলোনারা কাছে ছিল না। লোনেও ব্রাজিলের তারকাকে দলে আনতে পারেনি বার্সেলোনা। এতে কিছুটা হলেও নাকি ক্ষুব্ধ লিও মেসি। তাই কি ক্লাবের সঙ্গে তাঁর দুরত্ব তৈরি হয়েছে? প্রশ্ন ফুটবল মহলের। 

কিন্তু বিষয়টা তেমন নয় একেবারেই। মেসির ক্লাব ছাড়ার উক্তির পাশাপাশি বার্সেলোনার সভাপতি এও বলেন, ‘মেসি বার্সেলোনার প্রতি দায়বদ্ধ। তাই তারা মেসিকে নিয়ে ভাবেন না। ’ কাতালান ক্লাবের সভাপতি এতটাই আত্মবিশ্বাসী, যে তিনি মনে করেন বার্সেলোনা ছেড়ে মেসি কোথাও যাবেন না। তাই মেসিকে নিয়ে তাঁদের ভাবনার কিছু নেই। ২০২১এ মেসির চুক্তি শেষ হলেও বার্সেলোনা চায় তিনি আজীবন এই ক্লাবেই খেলুন। তাই মেসি যা চাইবেন তাই হবে। বার্সেলোনার লা মাসিয়া অ্যাকাডেমিতেই, আর্জেন্তিনার এক সাধারণ বালক থেকে আজকের ফুটবল যুবরাজ হয়েছেন মেসি। বর্তমানে তিনিই বার্সেলোনার সর্বোচ্চ গোলদাতা। চলতি মরসুমে চোটের জন্য এখনও ক্লাবের জার্সিতে মাঠে নামতে পারেননি বার্সেলোনার অধিনায়ক মেসি। চলছে তাঁর রিহ্যাব পর্ব। মেসিকে ছাড়া লা লিগায় বার্সেলোনার শুরুটাও ভাল হয়নি। তিন ম্যাচ খেলে ভালভেরদের দলের পয়েন্ট মাত্র চার।