ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়া, অভিষেক টেস্টেই দুরন্ত শতরান কার, সবই ঠিক দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে প্রথমে চোট পাওয়া। সেটা কাটিয়ে মাঠে ফেরার পরই ডোপ কাণ্ডে নির্বাসন। আট মাস মাঠের বাইরে থেকে গতমাসে সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০ ট্রফিতে মাঠে ফিরে এসেছিলেন পৃথ্বী। মাঠে ফিরেই দুরন্ত একটা অর্ধশতরান করেছিলেন পৃথ্বী। তারপর থেকে বেশ ছন্দেই কথা বলতে তাঁর ব্যাট। আর এবার রঞ্জি ট্রফিতে প্রথম ম্যাচেই একটা নতুন কীর্তি স্থাপন করলেন পৃথ্বী শাহ। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করলেন পৃথ্বী শাহ। বরোদার বিরুদ্ধে ১৭৯ বলে ২০২ রানের ইনিংস খেললেন পৃথ্বী। 

আরও পড়ুন - একদিনের সিরিজেও নেই ধাওয়ান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সুযোগ পেলেন মায়াঙ্ক

পৃথ্বীর এই দাপুটে ব্যাটিং ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটে গত ২৫ বছরে দেখা যায়নি। গত মরসুমে পৃথ্বীই ছিলেন ভারতীয় নির্বাচকদের টেস্ট ওপেনার হিসেবে প্রথম পছন্দ। কিন্তু তারপর ছবিটা বদলে যায়। রোহিত শর্মা ও মায়াঙ্ক আগারওয়ালের মধ্যে টিম ইন্ডিয়া টেস্ট ওপেনারের সামস্যা কাটিয়ে উঠেছে। তাই লড়াইটা খুবই কঠিন পৃথ্বীর কাছে। তবে রঞ্জি ট্রফির প্রথম ম্যাচটাতেই পৃথ্বী জাতীয় দলে ফিরে আসার বার্তাটা দিয়ে দিলেন। নিউজিল্যান্ড সফরে টিম ম্যানেজমেন্ট তিনজন ওপেনার দলের সঙ্গে নিয়ে যেতে চাইবে। আর সেই দলে নিজেকে দেখতে চাইছেন তরুণ এই ওপেনার। দল নির্বাচনের আগে নিজেকে প্রমাণ করার একটা সুযোগও ছাড়তে নারাজ তিনি। 

আরও পড়ুন - দশ বছর পর পাকিস্তানে ফিরল টেস্ট ক্রিকেট, এবার ভাবনা শুরু পিঙ্ক বল টেস্টের

এদিকে এই মরসুমের প্রথম ম্যাচে মাঠে নেমে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ১৫০টি রঞ্জি ম্যাচ খেলার কৃতিত্ব অর্জন করেছিলেন ওয়াসিম জাফর। বিদর্ভের হয়ে এই মরসুমেও মাঠে নামলেন তিনি। এদিকে কর্নাটকের বোলার আর বিনয় কুমার রনজি ট্রফিতে ৪০০ তম উইকেট নিলেন। বুধবার তামিলনাড়ুর বিরুদ্ধে এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন বিনায় কুমার। এদিকে অন্ধ্র প্রদেশ বিদর্ভ ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন গণেশ সতীশ। তার ব্যাটে ভর করেই অন্ধ্র প্রদেশের বিরুদ্ধে নিজেরে সম্মানজনক জায়গায় নিয়ে এসেছে গতবারের চ্যাম্পিয়ন বিদর্ভ। 

আরও পড়ুন - আবার অলিম্পিক খেলতে চান বিজেন্দর, তবে মানতে পারবেন না সব শর্ত