২০১৮ সালে মোহনবাগান নির্বাচন। মোহনবাগান শিবিরে তখন বিভেদের হাওয়া। সবুজ মেরুণ জার্সিতে মাঠে না নামলেও ক্লাব চালাতে গিয়ে কয়েক দশক ধরে যারা এক সঙ্গে কাঁধে কাঁধ রেখে এগিয়ে গিয়েছিলেন, কিন্তু সেই দুই বন্ধুর সম্পর্কে তখন চিড় ধরেছে বলেই ময়দানে খবর। তবে টুটু বসু বা অঞ্জন মিত্র যাঁকেই প্রশ্ন করা হোক, দুজনেই বলতেন, ক্লাব নির্বাচন নিয়ে মত আলাদা হলেও বন্ধুত্ব অটুট। অসুস্থ শরীর নিয়ে ভোটের লড়াই করার চেষ্ঠা করেছিলেন অঞ্জন মিত্র। কিন্তু শরীর না দেওয়ায় সচিব পদ থেকে সরে গিয়েছিলেন তিনি। অঞ্জনের ছেড়ে যাওয়া পদে বসেছেন টুটু বসু। 

আরও দেখুন - মোহনবাগান ক্লাবে অঞ্জন মিত্রকে শেষ শ্রদ্ধা কলকাতা ময়দানের

এবার বন্ধু অঞ্জন শুধু ক্লাব নয়, সব মায়া ত্যাগ করেই চলে গেলেন।  টুটু বসুর কাছে এটা একটা বড় ধাক্কা। বন্ধুকে চিঠি লিখেই নিজের শেষ শ্রদ্ধা জানালেন মোহনবাগানের বর্তমান সচিব। আবেগঘন সেই চিঠিতে যেমন আছে ছোট বেলার কথা তেমনই আছে মোহনবাগানের হয়ে লড়াই করার কথা। আর সব শেষে টুটু বসু লিখলেন, ‘যেখান যাচ্ছিস ভাল থাকিস। শান্তিতে থাকিস।

 

 

আরও পড়ুন - প্রয়াত প্রাক্তন মোহনবাগান সচিব অঞ্জন মিত্র, ময়দানে শোকের ছায়া

অঞ্জন মিত্রের প্রয়াণে মোহনবাগান সহ গোটা কলকাতা ময়দানে শোকের ছায়া। সবুজ মেরুণ তাঁবুতে অঞ্জন মিত্রের পার্থিব শরীর আসার পর সেখানেই তাঁকে শ্রদ্ধা জানান ময়দানের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা মানুষরা। ময়দানের আরও দুই বড় ক্লাব ইস্টবেঙ্গল ও মহমেডানের পক্ষ থেকেও আসে শেষ শ্রদ্ধা।  ক্লাব তাঁবুতে ছুটে আসেন প্রাক্তন ফুটবলারাও।