[07:28, 17/07/2020] ঋতব্রত: মাঝে ব্যবধান ছিল দুটি মরশুমের। ২০১৬-১৭ মরশুমের পর ফের লা-লিগা খেতাব জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ। বৃহস্পতিবার রাতে ভিলারিয়েলের বিরুদ্ধে নিজেদের ঘরের মাঠে খেলতে নেমেছিল জিনেদিন জিদানের ছেলেরা। তাদের-কে ২-১ গোলে হারিয়ে খেতাব দখল করলো সার্জিও র‍্যামোস-রা। জোড়া গোল করলেন করিম বেনজেমা। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই খেতাব নিশ্চিত করলো গ‍্যালাকটিকোরা। শেষ বার যখন লা-লিগা জিতেছিল রিয়াল, তখন তাদের সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। মোট ২৯ টি লিগের ম্যাচে নেমে ২৫ টি গোল করেছিলেন সি আর সেভেন। এই মরশুমে রিয়ালের সর্বোচ্চ গোলদাতা ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। মোট ৩৬ টি ম্যাচ খেলে ২১ টি গোল করেছেন তিনি। এখনও একটি ম্যাচ খেলা বাকি রিয়ালের। সেই ম্যাচে তার সামনে সুযোগ থাকবে এখনও অবধি লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা লিও মেসি-কে টপকে যাওয়ার। 

আরও পড়ুনঃজন্টি রোডসকে দেখেই ক্রিকেটার হওয়ার ইচ্ছে জেগেছিল, জানালেন এবি ডিভিলিয়ার্স

আজ বিয়াল বনাম ভিলারিয়েল ম্যাচের প্রথমার্ধ থেকেই আক্রমণ, প্রতিআক্রমণে জমে উঠেছিল খেলা। ম্যাচের ২৯ মিনিটে ভিলারিয়েলের মাঝমাঠের ভুলে পাসিংয়ের ফলে বল পেয়ে যায় লুকা মদ্রিচ। তিনি নিখুঁত পাস বাড়ান বেনজেমার উদ্দেশ্যে। বাকি কাজে ভুল করেননি রিয়ালের নম্বর নাইন। দ্বিতীয়ার্ধে ৭৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় মাদ্রিদ। পেনাল্টি নিতে গিয়ে শট না মেরে বেনজেমার উদ্দেশ্যে বল বাড়িয়ে দেন র‍্যামোস। কিন্তু বিধি ভেঙে পেনাল্টি টেকার বল ছোঁয়ার আগেই বেনজেমা বক্সে ঢুকে পড়ায় সেই পেনাল্টি আবার নতুন করে নিতে বলা হয় রিয়াল-কে। এবার পেনাল্টি নেন বেনজেমা এবং গোল করতে কোনও ভুল করেননি তিনি। ম্যাচের ৮৩ মিনিটে ভিলারিয়েলের এবোর একটি গোল শোধ করলেও তা যথেষ্ট ছিল না। উপরন্তু আর-একটি গোল করে রিয়াল, যদিও মার্কো অ্যাসেন্সিয়োর সেই গোলটি রিভিউয়ের পর বাতিল হয় এবং শেষপর্যন্ত ২-১ গোলে ম্যাচ জিতেই লা-লিগা খেতাব নিশ্চিত করে রিয়াল মাদ্রিদ। 

আরও পড়ুনঃএটিকে ও মোহনবাগানের এক হওয়ার সিদ্ধান্তে খুশি নন লুইস গার্সিয়া

আরও পড়ুনঃলাইসেন্সিংয়ের জন্য ইষ্টবেঙ্গলকে অতিরিক্ত ৭ দিন সময় দিল ফেডারেশন

অপরদিকে লা-লিগার অপর একটি ম্যাচে ওসাসুনা-র কাছে লজ্জার পরাজয় উপহার পেল মেসিরা। ম্যাচের ১৫ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যায় ওসাসুনা। অনেক চেষ্টা করেও প্রথমার্ধে গোলমুখ খুলতে পারেনি বার্সা। একবার মেসির ফ্রি-কিক পোস্টে লেগে ফেরে। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে গোল করে সমতা ফেরান মেসি। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন ওসাসুনা-র এনরিক গালেগো। আরও চাপ বাড়ায় বার্সা। কিন্তু লাভ হয়নি। বরং অতিরিক্ত সময়ে গোল করে তিন পয়েন্ট নিয়ে বেরিয়ে যায় ওসাসুনা। ম্যাচের ফল এইবার লা-লিগায় বার্সার পারফরম্যান্সেরই প্রতিফলন বলে মনে করছেন অনেকে।