টানা তিন ম্যাচের হতাশা কাটিয়ে অবশেষে জয়ে ফিরেছে জুভেন্তাস। এই বছর সিঁরি আ-এর প্রথমভাগে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লাৎজিও কে দাপট দেখিয়ে হারিয়েছে তারা। এর আগে চলতি মরশুমে দু-বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিল জুভেন্তাস এবং লাৎজিও। দুই বারই হারের মুখ দেখতে হয় বায়ানকোনেরি-দের। প্রথম ম্যাচে লিগের খেলায় পিছিয়ে গিয়েও ৩-১ গোলে ম্যাচ জিতে নেয় লাৎজিও। তারপর গত বছরের শেষ ম্যাচ ইতালিয়ান সুপার কাপের ম্যাচেও ৩-১ গোলে হেরেছিল জুভেন্তাস। 

আরও পড়ুনঃতৃণমূলের চাপ ও ভয়েই দল ছেড়েছেন মেহতাব হোসেন, দাবি বিজেপি নেতৃত্বের

গত ম্যাচে মৌরিসিও সারির দল ২-১ ফলে হারিয়েছে লাৎজিও-কে। সমস্ত সুযোগ কাজে লাগলে জয়ের ব্যবধান আরও বেশিও হতে পারতো। ম্যাচে জুভেন্তাসের হয়ে দুটি গোলই করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। লাৎজিওর হয়ে একমাত্র গোলটি করেন কিরো ইমোবাইল। জুভেন্তাসের হয়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেন পাওলো দিবালা। তার এবং রোনাল্ডোর জুটি ধীরে ধীরে দানা বাঁধতে শুরু করেছে। গত ম্যাচে পেনাল্টি থেকে প্রথম গোলটি করার পরে রোনাল্ডোর দ্বিতীয় গোলটি আসে পাওলো দিবালার নিঃস্বার্থ পাস থেকেই। আরও একবার দুর্দান্ত ক্রসে রোনাল্ডোকে বক্সে পেয়ে গিয়েছিলেন দিবালা। কিন্তু রোনাল্ডো জোড়ালো হেড পোস্টে লেগে ফেরায় হ্যাটট্রিক অধরাই থেকে যায় পর্তুগিজ তারকার। 

আরও পড়ুনঃফের ধাক্কা খেল ম্যান ইউ, চ্যাম্পিয়ন লিগে যোগ্যতার ভাগ্য নির্ধারণ লিগের শেষ পর্বে

আরও পড়ুনঃ'কাঁধে বল লাগলেও সচিনের আউটের সিদ্ধান্ত নির্ভুল ছিল', ২০ বছর পরও সিদ্ধান্তে অনড় আম্পায়ার ড্যারিল হার্পার

রোনাল্ডো এবং দিবালা-র এই ফর্মই মরশুমের বাকি অংশেও দেখতে চান জুভে হেডকোচ মৌরিসিও সারি। এখনও লিগে চারটি ম্যাচ বাকি। জুভেন্তাস-কে এখনও খেলতে হবে শক্তিশালী কিছু দলের বিরুদ্ধে। লিগ নিশ্চিত করতে এখনও ৩ পয়েন্ট দরকার জুভের। রোনাল্ডো এবং দিবালা জুটির ওপর ভর করে যত দ্রুত সম্ভব এই পয়েন্ট তুলে নিতে চায় জুভেন্তাস। জুভেন্তাসের মাঝমাঠের অবস্থা একেবারেই ভালো নয়। লিগ শেষ হওয়া মাত্রই তাদের খেলতে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। সেখানে শেষ ষোলোর খেলায় লিওনের সঙ্গে এগ্রিগেটে ১ গোলে পিছিয়ে রয়েছে তারা। সেই ম্যাচেও সারির ভরসা হতে চলেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এবং পাওলো দিবালা।